১ এপ্রিল থেকেই বড় পরিবর্তন! লাফিয়ে বাড়বে ৮০০ ওষুধের দাম, ফের টান পড়বে পকেটে

বাংলা হান্ট ডেস্ক: বর্তমান সময়ে দেশজুড়ে (India) ক্রমশ বৃদ্ধি পাচ্ছে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম। যার ফলে প্রত্যক্ষভাবে প্রভাবিত হচ্ছে সাধারণ মানুষ। ঠিক সেই রেশ বজায় রেখেই এবার ফের একটি গুরুত্বপূর্ণ আপডেট সামনে এসেছে। যেটি জানার পর পড়বে মাথায় হাত। এই প্রসঙ্গে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী জানা গিয়েছে যে, এবার দাম বাড়তে চলেছে ওষুধের (Medicine Price)।

   

এমতাবস্থায়, ১ এপ্রিল থেকেই বাড়তে চলেছে ওষুধের দাম। যার মধ্যে অ্যান্টিবায়োটিক থেকে শুরু করে পেইনকিলার সহ প্রায় ৮০০ টি ওষুধ রয়েছে। এদিকে, দাম বাড়তে চলেছে করোনার বেশ কয়েকটি ওষুধ ছাড়াও ভিটামিন, মিনারেলের ওষুধেরও। জানিয়ে রাখি যে, গত বছর ওষুধের দাম ১২ শতাংশ এবং ২০২২ সালে ১০ শতাংশ বৃদ্ধি হয়। যদিও, চলতি বছরে ফের বাড়তে চলেছে ওষুধের দাম। এমতাবস্থায়, দাম বাড়ছে প্যারাসিটামল, অ্যাজিথ্রোমাইসিনেরও।

The price of 800 drugs is going to increase from April 1.

এই প্রসঙ্গে জাতীয় ওষুধ মূল্য নির্ধারণকারী সংস্থা ন্যাশনাল ফার্মাসিউটিক্যাল প্রাইসিং অথরিটি (National Pharmaceutical Pricing Authority, NPPA) এই বিষয়টি ঘোষণা করেছে। মূলত, এটি পাইকারি মূল্য সূচকের বার্ষিক পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে অপরিহার্য ওষুধের তালিকার অধীনে থাকা তলিকাভুক্ত ওষুধের দামে কয়েক শতাংশ ক্ষুদ্র বার্ষিক মূল্য বৃদ্ধিকেই নির্দেশ করে।

আরও পড়ুন: চন্দ্রযান-৩-এর পর ফের হাসিল বড় সাফল্য! “পুষ্পক”-এর মাধ্যমে অসাধ্যসাধন ISRO-র

জানিয়ে রাখি যে, কয়েকদিন আগেই ফার্মা সংস্থাগুলি শাসকদল বিজেপির নির্বাচনী বন্ডে প্রায় ৯০০ কোটি টাকা দিয়েছে বলে খবর মিলেছে। এদিকে, NPPA ঘোষণা করেছে যে, পাইকারি মূল্য সূচকের বার্ষিক পরিবর্তনের সাথে সামঞ্জস্য রেখে প্রয়োজনীয় ওষুধের জাতীয় তালিকার অধীনে থাকা ওষুধের ক্ষেত্রে পরিবর্তনের পরিমাণ হবে ০.০০৫৫ শতাংশ।

আরও পড়ুন: ভারতের লাভে থাবা বসাচ্ছে পাকিস্তান! চাল চুরি করতে গিয়ে ধরা পড়ল পড়শি দেশ, সামনে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য

পাশাপাশি, ন্যাশনাল ফার্মাসিউটিক্যাল প্রাইসিং অথরিটি সূত্রে এটাও জানানো হয়েছে যে, অর্থনৈতিক উপদেষ্টা, শিল্প বিভাগ এবং বাণিজ্য ও শিল্প মন্ত্রকের অভ্যন্তরীণ বাণিজ্য মন্ত্রকের কার্যালয় দ্বারা প্রদত্ত WPI ডেটার ওপর ভর করেই WPI-তে বার্ষিক পরিবর্তন ২০২৩ সালের ক্যালেন্ডার বছরে ০.০০৫৫১ শতাংশ হিসেবে কাজ করছে।

Sayak Panda
Sayak Panda

সায়ক পন্ডা, মেদিনীপুর কলেজ (অটোনমাস) থেকে মাস কমিউনিকেশন এবং সাংবাদিকতার পোস্ট গ্র্যাজুয়েট কোর্স করার পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। ২ বছরেরও বেশি সময় ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর