টাইমলাইনটাকা পয়সাভারত

এবার করের আওতায় মাংস, আটা এবং মুড়ি! GST কাউন্সিলের সুপারিশে দাম বাড়ছে এই পণ্যগুলির

বাংলা হান্ট ডেস্ক: বর্তমান সময়ে কার্যত মুদ্রাস্ফীতির রক্তচক্ষুর মাঝে দাঁড়িয়ে রয়েছে ভারতীয় অর্থনীতি। ইতিমধ্যেই পেট্রোল-ডিজেলের ক্রমবর্ধমান দামের কারণে জর্জরিত সকলেই। পাশাপাশি, দাম বাড়ছে রান্নার গ্যাসেরও। শুধু তাই নয়, টাকার দামও ক্রমশ এগোচ্ছে ৭৯ টাকার দিকে। এমতাবস্থায়, ইতিমধ্যেই রেপো রেট বাড়ানোর ঘোষণা করেছে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক।

কর বসছে খাদ্যদ্রব্যের ওপর:
এদিকে, মুদ্রাস্ফীতির আবহেই এবার আমজনতার পকেটে ফের টান ফেলতে একাধিক পণ্যকে GST-র আওতায় নিয়ে এল সংশ্লিষ্ট পরিষদ। পাশাপাশি, নিত্যপ্রয়োজনীয় ওইসব জিনিসপত্রের ওপর কর ছাড়ের সুবিধা তুলে নেওয়া হল। ফলস্বরূপ, এবার ৫ শতাংশ হারে GST লাগু হল পণ্যগুলির ওপর। জানা গিয়েছে এবার প্যাকেটবন্দি তথা ব্র্যান্ডেড চাল, ডাল, আটা, গুড়, দই, লস্যি, মধু, পনির সহ মুড়ি, মাছ, মাংসের মত খাদ্যদ্রব্যে বসানো হচ্ছে কর।

শুধু তাই নয়, নতুন নিয়ম অনুযায়ী, এবার থেকে ব্যাঙ্কের চেকবই পেতেও ১৮ শতাংশ কর দিতে হবে গ্রাহকদের। পাশাপাশি, কোনোভাবেই যাতে করে ফাঁকি দেওয়া না যায় সেই ভাবনাও ভেবে রেখেছে GST পরিষদ। উল্লেখ্য যে, রাজ্যগুলির মন্ত্রীগোষ্ঠী বেশ কিছু পণ্যের উপর থেকে কর ছাড় তুলে নেওয়ার সুপারিশ জানিয়েছিল। এমতাবস্থায়, নতুনভাবে এই খাদ্যদ্রব্যের ওপর করের বোঝা চাপিয়ে দেওয়া হল।

এদিকে, ২৮ ও ২৯ জুন চণ্ডীগড়ে চলছে GST পরিষদের দু’দিন ব্যাপী বৈঠক। এই বৈঠকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামণ। একাধিক বিষয়ের ওপর কর বসানো নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে সেখানে। সেই অনুযায়ী জানা গিয়েছে, এবার হাসপাতালের আইসিইউ বাদে, যেসব কক্ষের ভাড়া ৫০০০ টাকার উপরে সেগুলির ক্ষেত্রে মোট ৫ শতাংশ GST ধার্য করা হবে। এর পাশাপাশি, হোটেলের রুমে ১০০০ টাকার কম ভাড়ার উপরেও ১২ শতাংশ হারে কর লাগু করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ইতিমধ্যেই বিভিন্ন রাজ্যের অর্থমন্ত্রীদের একটি গোষ্ঠীকে কর কাঠামো সংশোধনের দায়িত্ব দেওয়া হয়। পাশাপাশি, কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী বাসবরাজ বোমাইয়ের নেতৃত্বের সেই গোষ্ঠী গতকাল GST পরিষদের বৈঠকে একাধিক সুপারিশ জানায়। সূত্র অনুযায়ী জানা গিয়েছে, বুধবারের বৈঠকে অনলাইন গেম, ঘোড়দৌড় এবং ক্যাসিনোর উপর ২৮ শতাংশ কর ধার্য করা নিয়ে আলোচনা হবে।

পরবর্তীকালে দাম বাড়তে পারে এই জিনিসগুলির:
এদিকে, এই বৈঠকের ভিত্তিতে মনে করা হচ্ছে যে, ভবিষ্যতে ছাপার কালি, ভোজ্য তেল, LED আলো, চামচ, ব্লেড, ছুরির পাশাপাশি বিদ্যুতচালিত পাম্পের দাম বাড়তে পারে। মূলত, এইসব পণ্যের কর কাঠামো বদলের সুপারিশ করায় এক্ষেত্রে করের হার ১২ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ১৮ শতাংশ করা হতে পারে। শুধু তাই নয়, এবার পোস্ট অফিসের বেশকিছু পরিষেবার উপরে কর ধার্য করার সুপারিশ করা হয়েছে। যদিও, ইনল্যান্ড লেটার, বুক পোস্ট, পোস্টকার্ড এবং ১০ গ্রামের কম ওজনের খাম বাদ দিয়ে এই কর ধার্য করা হতে পারে। পাশাপাশি, আগের মতোই কর ছাড় পাবে মোড়ক এবং লেবেলড ব্র্যান্ড নেম ছাড়া পণ্যগুলি।

Related Articles

Back to top button