fbpx
টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গভারত

বাংলায় তৈরী জাহাজ এবার গবেষনা করবে সমুদ্রে

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ টিটাগড় ওয়াগন লিমিটেড কারখানায় তৈরী সম্পূর্ণ দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি সমুদ্র গবেষণার কাজে ব্যবহৃত জাহাজ ‘সাগর অন্বেষিকা’কে তুলে দেওয়া হল এনআইওটি’র হাতে। মাত্র আড়াই বছরে তৈরী হয়েছে জাহাজটি।

টিটাগড় ওয়াগন লিমিটেড কারখানার ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জেপি চৌধুরী এবং এনআইওটি’র প্রজেক্ট ডিরেক্টর ডি রাজ শেখর, বিকে ঠাকুরের উপস্থিতিতে, এই গবেষক জাহাজটিকে ‘ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ ওশিয়ান টেকনোলজি সংস্থা’ সংস্থার হাতে তুলে দেওয়া হয়। রাজ্যের জাহাজ নির্মানকারী সংস্থা অত্যাধুনিক সুবিধা যুক্ত এই জাহাজটি তৈরি করেছে।

সম্পূর্ণ দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি সমুদ্র গবেষণার কাজে ব্যবহৃত জাহাজ ‘সাগর অন্বেষিকা’কে শুক্রবার সরকারিভাবে, ভারতীয় সমুদ্র গবেষণা সংস্থা ‘ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ ওশিয়ান টেকনোলজি সংস্থা’ বা এনআইওটি’র হাতে তুলে দেওয়া হল।

এই জাহাজটি  সমুদ্রের গভীরে গিয়ে জলের গুণাগুণ, জলের খার, সামুদ্রিক প্রাণীদের নিরাপদ স্থান, জলজ সম্পদের অনুসন্ধান, এমনকি সুনামি সতর্কতার কাজ ও করতে সক্ষম বলে জানা যাচ্ছে। নাম দেওয়া হয়েছে সাগর অন্বেষিকা।  আপাতত বঙ্গোপসাগরে কাজ করবে জাহাজটি। পরবর্তীকাল এই জাহাজটি কাজ করবে আরব সাগরে । এই জাহাজটিতে সমুদ্র বিজ্ঞানী সহ মোট ২০জন কেবিন ক্রু সদস্য থাকতে পারবে। জাহাজের ভিতরে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির সমস্ত সুবিধা রয়েছে। জাহাজের ভিতরে আছে বিজ্ঞানীদের পরীক্ষা করার জন্য ডিজিটাল ল্যাবরেটরীও।

পাশাপাশি টিটাগড় ওয়াগন লিমিটেড কারখানা ‘সাগর তারা’ নামের আরো একটি সমুদ্র জাহাজ তৈরি করেছে। দুটি জাহাজের কর্মক্ষমতা একই, সেই জাহাজটিও সমুদ্র গবেষণার কাজে ব্যবহৃত হচ্ছে। ৫০ কোটি টাকা করে দুটি জাহাজ তৈরী করতে সংস্থার ১০০ কোটি টাকা খরচ হয়েছে।

Back to top button
Close
Close