ভাইরাল ভিডিওতে চটপটা মিউসিকে নাচ করছেন রাজন্যা? এবার বেজায় চটলেন নেত্রী, বললেন…

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ ২১ জুলাই, তৃণমূলের শহিদ দিবসে (Trinamool Shahid Diwas) বিপুল কর্মী সমাবেশের মধ্যে মঞ্চে দাঁড়িয়ে বক্তৃতা রাখেন সোনারপুরের মেয়ে রাজন্যা হালদার (Rajanya Haldar)। নিজের ঝাঁঝালো বক্তৃতা আর দৃঢ় আত্মবিশ্বাসের সাথে মঞ্চ কাঁপান তিনি। সেই থেকে কৌতূহলের কেন্দ্রবিন্দু এখনও তৃণমূলের (Trinamool Congress) যুবনেত্রী।

   

তবে লাইমলাইটে আসার পাশাপাশি ইতিমধ্যেই নানা বিতর্কেও জড়িয়ে পড়েছেন রাজন্যা। সম্প্রতি যাদবপুর ঘটনাতেও তৃণমূল ছাত্র পরিষদের মিছিলে তাকে সক্রিয় থাকতে দেখা গিয়েছে। সেই নিয়েও জোর চৰ্চা। এরই মাঝে এবার প্রকাশ্যে নেত্রীর নাচের ভিডিয়ো (Viral Dance Video)। আর তার পরই জোর সমালোচনা করা হচ্ছে নেত্রীকে নিয়ে।

ভিডিওতে ওপর এক যুবতীর সঙ্গে সেখানে নাচতে দেখা যাচ্ছে রাজন্যাকে। এই নিয়ে এক বেসরকারি সংবাদমাধ্যমের সামনে মুখ খুলেছেন রাজন্যা। তিনি বলেন, ‘এটা আমার ব্যক্তিগত জীবনের ভিডিও। নাচের মধ্যে অশ্লীলতা কী আছে, সেটা আমি সত্যিই জানি না!’

আরও পড়ুন: অস্কার পাওয়ার যোগ্যতা রয়েছে মমতার! ফেসবুকে ভিডিও পোস্ট করে যা লিখলেন BJP-র সজল ঘোষ

নিজের ভিডিও হঠাৎ ভাইরাল হওয়া নিয়ে নেত্রী বলেন, ‘যারা ভাইরাল করছে তাদের উত্তর দিতে চাই না। কে কী বলল, কে কী বলল না, তাতে সত্যিটা ঢেকে যাবে না। ওরা এখন যে কাণ্ড যাদবপুরে ঘটিয়ে ফেলেছে, সেটা চাপা দিতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। তাই যাকে ইচ্ছা যেভাবে ইচ্ছা হেনস্থা করছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমাকে যা খুশি বলুক। কিন্তু ওই ভিডিওয় আমার সঙ্গে বোনও রয়েছে। এত বড় বড় প্রগতিশীলতার কথা বলে, অ্যান্টি ব্যাগিংয়ের কথা বলে অথচ ভিডিও নিয়ে নোংরা কমেন্ট করছে। আমি রাজনীতির ময়দানে আছি। আমার বোন তো নেই! তাকে তো মানসিকভাবে হেনস্থা করা হচ্ছে। আমার মনে হয় এটা ব্যাগিং।’

rajanya haldar

আরও পড়ুন: পুজোর আগেই সুখবর! প্রচুর কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দিল রাজ্য সরকার, খুশিতে আত্মহারা মানুষজন

পাশাপাশি ভিডিও ছড়ানোর পিছনে বামপন্থীদের হাত রয়েছে বলেও দাবি করেন রাজন্যা। তাদের তোপ দেগে নেত্রী বলেন, ‘ওদের কাছ থেকে এর চেয়ে বেশি প্রত্যাশা ছিল না। এরা নিম্নরুচির, নিম্ন মানসিকতার। ব্যাগিংমুক্তি ক্যাম্পাস গড়ার স্বপ্ন দেখে তৃণমূল ছাত্র পরিষদ। এটা একদমই বামপন্থীদের আদর্শ বিরুদ্ধ৷’

এরপর স্পষ্ট কথায় তিনি বলেন, ‘এটা ভুলে গেলে হবে না, আমরা মমতা ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের আদর্শে রাজনীতি করি। দুটো-তিনটে ভিডিও নিয়ে অশালীন মন্তব্য করে আটকানো যাবে না৷’

সম্পর্কিত খবর