অর্জুন, বাবুনের পর এবার বিস্ফোরক শান্তনু! লোকসভার টিকিট না মেলায় দিকে দিকে ক্ষোভ

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ লোকসভা নির্বাচনের প্রার্থী তালিকা ঘোষণার পর থেকেই অশান্তির আবহ তৃণমূলের অন্দরে। সায়ন্তিকা বন্দ্যোপাধ্যায়, অর্জুন সিংয়ের পর সম্প্রতি প্রার্থী নির্বাচন নিয়ে ক্ষোভ উগড়ে দেন তৃণমূল বিধায়ক হুমায়ুন কবীর। তৃণমূল (TMC) সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাই বাবুন অবধি প্রার্থী নির্বাচনে খুশি নন! হাওড়ায় প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়কে দাঁড় করানো নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেন তিনি। এবার সরব হলেন শান্তনু সেন (Shantanu Sen)।

   

রবিবার ব্রিগেডের জনগর্জন সভা মঞ্চ থেকে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের (Lok Sabha Election 2024) প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করেন তৃণমূলের (Trinamool Congress) সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই তালিকায় যেমন বেশ কিছু পুরনো নাম রয়েছে, তেমনই দেখা গিয়েছে নতুন মুখও। রচনা বন্দ্যোপাধ্যায়, ইউসুফ পাঠানের মতো একাধিক তারকাকে এবার টিকিট দিয়েছে জোড়াফুল শিবির। এরপরেই সরব হতে শুরু করে দলের একাধিক নেতা-নেত্রী!

সদ্য শান্তনু সেনের রাজ্যসভার সাংসদ পদের মেয়াদ শেষ হয়েছে। এরপর নতুন করে মনোনয়ন দেয়নি দল। লোকসভা (Lok Sabha) নির্বাচনের টিকিট পাওয়ার ‘স্বপ্ন’ ছিল স্বীকার করে নেন তৃণমূল নেতা। তবে রবিবার সেই আশাও ভেস্তে যায়। দলের এই সিদ্ধান্তে যে তিনি কষ্ট পাচ্ছেন তা এবার জানিয়ে দিলেন শান্তনু।

আরও পড়ুনঃ বড় ডিল? ঠিক কোন কারণে তার বাড়িতে ED হানা? বাংলা হান্টের প্রশ্নে বিস্ফোরক BJP-র তাপস রায়

তৃণমূল নেতা বলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে (Mamata Banerjee) দেখে তিনি দল করেন। দল তাঁকে রাজ্যসভায় পাঠিয়েছিল। প্রাণপাত করে রাজ্যসভায় দলের জন্য কাজ করেছেন। বিজেপির বিরুদ্ধে আন্দোলন করতেও পিছপা হননি। দলের নির্দেশ পালন করেছেন। ভালোভাবে কাজ করার পর আশা করেছিলেন হয়তো ফের মনোনীত হবেন। তবে সেটা হয়নি।

শান্তনুর সংযোজন, ‘লোকসভার ক্ষেত্রেও যে স্বপ্ন দেখিনি সেটা নয়। আসলে পার্লামেন্টারি পলিটিক্সটা মন দিয়ে করেছিলাম, তাই ভেবেছিলাম লোকসভায় জায়গা হতে পারে। সেটা হয়নি। কিছুটা খারাপ লেগেছে, কষ্ট হয়েছে। প্রথমদিন থেকে তৃণমূল কংগ্রেস করি। পেশাগত কাজ বাদে দিনের বাকি সময়টা তৃণমূলের জন্যই নিয়োজিত করি। সিপিএমের হাতে মারও খেয়েছি। আশা করে আশাহত হলে কষ্ট তো লাগবেই’।

tmc mamata banerjee shantanu sen

দল টিকিট না দেওয়ায় কষ্ট পেলেও অবশ্য তৃণমূলের হাত ছাড়বেন না, জানিয়েছেন শান্তনু। তিনি বলেন, ‘কষ্ট চেপে রেখে দল যা দায়িত্ব দেবে আগামী দিনে নিষ্ঠার সঙ্গে পালন করব। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রতি আমার আস্থা আছে’।

Sneha Paul
Sneha Paul

স্নেহা পাল, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তরের পর সাংবাদিকতা শুরু। বিগত প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর