‘দেখি কী হয়’, একের পর এক কারখানা বন্ধে ক্ষুব্ধ অর্জুন সিং! মমতার দৃষ্টি আকর্ষণ তৃণমূল নেতার

   

বাংলা হান্ট ডেস্ক: একের পর এক কারখানা বন্ধ হয়ে যাওয়া নিয়ে ক্ষোভপ্রকাশ করলেন সাংসদ অর্জুন সিং (Arjun Singh)। পুজোর মরসুমে দিনের পর দিন ধরে একাধিক জুট মিল (Jute Mill) বন্ধ হওয়ার পথে। মালিকপক্ষের সঙ্গে শ্রমিকদের বিরোধের জেরে বন্ধ হয়ে যাচ্ছে কাজ। রবিবারও জগদ্দলের একটি কারখানায় শ্রমিক অসন্তোষের জেরে কাজ বন্ধ হয়ে যায়। আর এইসব কারণেই এবার সরব হলেন তৃণমূল (TMC) নেতা অর্জুন সিং।

শ্রমিক-মালিক অসন্তোষের জেরে বারবার বন্ধ হয়ে যায় ব্যারাকপুরে (Barrackpur) শিল্পাঞ্চলের বিভিন্ন কলকারখানা। সর্বদাই পাশে থাকার বার্তা দেন ব্যারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিং। জানা যাচ্ছে, বিগত চার মাস ধরে বন্ধ হচ্ছে জগদ্দলের বেশ কয়েকটি মিল। যার মধ্যে রয়েছে জগদ্দলের এ আই চাঁপদানি ফ্লেক্স ইউনিট, শ্যামনগর অন্নপূর্ণা কটন মিল ইত্যাদি। আর এই গোটা বিষয়টি নিয়ে এক শ্রেণির মিল মালিককে কাঠগড়ায় তুললেন ব্যারাকপুরের সাংসদ। চার মাস পর চাঁপদানি ফাইন ইয়ান ইউনিট জুট মিল খোলার কথা থাকলেও খোলেনি। তার জেরে এদিন জগদ্দল ঘোষপাড়া রোড অবরোধ করেন জুট মিলের কর্মীরা।

arjun mamata

অর্জুন সিং বলেন, ‘শ্রমিক ইউনিয়নের (Union) সঙ্গে চুক্তি হয়ে যাওয়ার পরেও মিল বন্ধ করে রাখছে কর্তৃপক্ষ। এর ফলে শ্রমিকদের ক্ষোভ বাড়ছে। তার আঁচ পড়বে কর্তৃপক্ষের উপর। মালিক কর্তৃপক্ষের গাফিলতির জেরেই বারবার মিল বন্ধ হয়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটছে। আমি গোটা বিষয়টি নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। দেখা যাক কি হয়।’

এদিন মালিকপক্ষের একাংশকে তীব্র কটাক্ষ করেন ব্যারাকপুরের সাংসদ (MP)। তিনি বলেন, ‘এখন তো জুট মিল মালিক বলে কিছু নেই। সব এক একটা প্রোমোটার হয়ে গিয়েছে। মাছের তেলে মাছ ভাজার চেষ্টা করছে। মিল মালিকরা আইন মেনে কোনও কাজ করছেন না।’

Avatar
Monojit

সম্পর্কিত খবর