টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

পোষ্যের গলায় ‘ইডি’ ও ‘সিবিআই’ প্ল্যাকার্ড! রাজ্যের মন্ত্রীর নেতৃত্বে এজেন্সির বিরুদ্ধে মিছিল তৃণমূলের

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ একদিকে এসএসসি, প্রাথমিক টেট কিংবা কয়লা ও গরু পাচার দুর্নীতি মামলা, আবার অপরদিকে এ সকল মামলায় ইডি (Enforcement Directorate) ও সিবিআইকে (CBI) ব্যবহার করার অভিযোগ এনে বিজেপি (Bharatiya Janata Party) সরকারের বিরুদ্ধে শাসক দলের আন্দোলন; সব মিলিয়ে উত্তপ্ত রাজনীতি। বিশেষত, অনুব্রত মণ্ডল (Anubrata Mondal) গ্রেফতারের পর থেকেই ইডি এবং সিবিআই এর মতো কেন্দ্রীয় এজেন্সিগুলির বিরুদ্ধে রাস্তায় নেমেছে ঘাসফুল শিবির। তবে এবার আক্রমণের ঝাঁঝ বাড়িয়ে এক অভিনব কায়দায় প্রতিবাদ মিছিলের আয়োজন করল তৃণমূল কংগ্রেস (Trinamool Congress)। এদিন মধ্য হাওড়ায় (Howrah) পোষ্যের গলায় ইডি ও সিবিআইয়ের প্ল্যাকার্ড ঝুলিয়ে প্রতিবাদ মিছিলের আয়োজন করে তারা।

উল্লেখ্য, সাম্প্রতিক সময়ে দুর্নীতি মামলায় একের পর এক তৃণমূল কংগ্রেস নেতা মন্ত্রীদের গ্রেফতার করে চলেছে কেন্দ্রীয় এজেন্সিগুলি। প্রথমে পার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং পরবর্তীতে অনুব্রত মণ্ডলকে গ্রেফতার করে তারা। এক্ষেত্রে তৃণমূল কংগ্রেসের তরফ থেকে দুর্নীতির বিরুদ্ধে কঠোর মনোভাব নেওয়া হলেও আবার অপরদিকে সিবিআই এবং ইডির মতো সংস্থাগুলিকে বিজেপির দ্বারা রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করার জন্য ব্যবহার করা হয়ে চলেছে বলে অভিযোগ আনে তারা। অনুব্রত মণ্ডলের গ্রেফতারের পর থেকেই রাস্তায় নামে তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীরা। সেই ধারা বজায় রেখে এদিন হাওড়ার বালটিকুড়ি থেকে কদমতলা পর্যন্ত একটি প্রতিবাদ মিছিলের আয়োজন করা হয়, যার নেতৃত্বে ছিলেন তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়ক তথা রাজ্যের ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মনোজ তিওয়ারি।

মিছিলে প্রতিটি তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী সমর্থকদের গলায় একটি প্ল্যাকার্ড ঝোলানো থাকে, যেখানে লেখা, “তৃণমূল কংগ্রেসকে সিবিআই ও ইডি দিয়ে ভয় দেখানো যাবে না।” একইসঙ্গে মিছিলে একটি পোষ্যের গলায় ‘ইডি’ এবং ‘সিবিআই’ প্ল্যাকার্ড ঝোলানো দেখা যায়। গোয়েন্দা সংস্থার বিরুদ্ধে বর্তমানে সাধারণ মানুষকে সতর্ক করার জন্যই এই মিছিলটি আয়োজন করা হয়েছে বলে দাবি করেন তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীরা।

উল্লেখ্য, কয়েকদিন পূর্বেও সিবিআই দফতরের বাইরে বিক্ষোভ দেখায় তৃণমূল কংগ্রেস। পরবর্তীতে কলকাতার পাশাপাশি জেলার বিভিন্ন প্রান্তে প্রতিবাদে নামেন তারা আর এদিন অভিনব কায়দায় প্রতিবাদ মিছিল করার মাধ্যমে কেন্দ্রীয় এজেন্সিগুলির বিরুদ্ধে বিক্ষোভের ঝাঁজ যে আরো বাড়িয়ে তুলল তৃণমূল, তা বলাবাহুল্য।

Related Articles