টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

শুভেন্দুর মিটিংইয়ে যাওয়ায় হল কাল! তৃণমূলের হামলায় ভয়ঙ্কর পরিণতি বিজেপি কর্মীর

বাংলাহান্ট ডেস্ক : ধুন্ধমার কাণ্ড ক্যানিংয়ে। ফের আক্রান্ত বিজেপি কর্মী। শুভেন্দু অধিকারীর মিছিলে যাওয়ায় মারধর করা হয় তাঁকে। এমনই অভিযোগ করলেন ওই বিজেপি কর্মী। তৃণমূলের দিকে তোলা হয়েছে অভিযোগের আঙুল। জানা যাচ্ছে আক্রান্ত ব্যক্তির নাম শঙ্কর দাস। আহত অবস্থায় ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে তাঁকে। স্থানীয় সূত্রে জানা যাচ্ছে, সোমবার রাতে ক্যানিং বাসস্ট্যান্ডের কাছে তাঁর উপর অতর্কিতে হামলা চালানো হয়। যদিও সমস্ত অভিযোগই অস্বীকার করেছে তৃণমূল। তাদের দাবি, পারিবারিক সমস্যার জেরেই নাকি আক্রান্ত ওই বিজেপি কর্মী হয়েছেন।

জানা যাচ্ছে, গত ২৪ জুন বারুইপুরে বিজেপি একটি মিছিল বের করে। সেই মিছিলে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীও। এরপর সেখানে একটি জনসভাও করেন তিনি। এই জনসভাতেই যোগ দেন ক্যানিং পশ্চিম বিধানসভার বিজেপির কর্মী-সমর্থকরা। অন্যান্যদের সঙ্গে সেখানেই উপস্থিত ছিলেন শঙ্কর দাসও। সেই ‘অপরাধেই’ সোমবার বেধড়ক মারধর করা হয় তাঁকে। গুরতর আহত অবস্থায় ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় শঙ্করবাবুকে। আপাতত সেখানেই ভর্তি রয়েছেন তিনি।

হাসপাতালের বেডে বসে হাউমাউ করে কাঁদতে থাকেন শঙ্কর দাস। আক্ষেপের সুরে তিনি বলেন, ‘আমি বিজেপির মিটিংয়ে গিয়েছিলাম বলে আমাকে এভাবে মারল ওরা। আমি ক্যানিংয়ের কোনও অনুষ্ঠানে থাকি না। কিছুদিন আগে শুভেন্দু অধিকারীর মিটিং ছিল বারুইপুরে। দলকে ভালবাসি বলে গিয়েছিলাম। আমি কোনও দলীয় পতাকা নিয়েও যাইনি। লোকজনের সঙ্গেও যাইনি। শুধু সাধারণ দর্শকের মতোই গিয়েছিলাম। আমি বাড়ি ফেরার পরই শুনছি বাড়িতে এসে হুমকি দিয়ে গেছে ওরা।‘তোর ছেলে আবার বিজেপি করছে?’ বলে আমার মাকে গালাগালি পর্যন্তও করেছে তৃণমূলের ছেলেরা। সবাই ক্যানিংয়েরই ছেলে।’

শঙ্কর দাসের স্ত্রী কাকলি দাস বলেন, ‘শুভেন্দু অধিকারীর মিটিংয়ে যাওয়ার জন্য মাকে যে ভাষায় কথা বলে গেছে তৃণমূলের ছেলেরা, তা মুখেও আনতে লজ্জা করে। ওরাও তো কোনও না কোনও মায়ের সন্তান। কী করে একজন মাকে এসব বলতে পারে জানি না। ওরা বলেছিল, আমার স্বামী যেন ওদের দাদাদের সঙ্গে গিয়ে দেখা করে। কিন্তু আমার স্বামী যায়নি। তাই এই হামলা। প্রথমে ঘরে ঢুকে মেরেছে। তারপর টেনে বাড়ির বাইরে নিয়ে গিয়ে শালকাঠের বাটাম দিয়ে মেরেছে। আমার স্বামী বিজেপি করে এটাই কি ওর অপরাধ?’

Related Articles