TRP-র কাছে হারলো জনপ্রিয়তা! ৯ মাসেই শেষ ‘জল থই থই ভালোবাসা’, কি বললেন ‘তোরা’ অনুশা?

   

বাংলা হান্ট ডেস্ক: এখনকার দিনে যে কোনো বাংলা সিরিয়ালের (Bengali Serial) ক্ষেত্রে শেষ কথা বলে টিআরপি (TRP)। তাই টিআরপি তালিকায় পিছিয়ে পড়লেই কিংবা নতুন কোনো সিরিয়াল আসলেই বন্ধ হয়ে যাচ্ছে একের পর এক জনপ্রিয় সিরিয়াল। তাই টেলিভিশনের পর্দায় এখন আর বছরের পর বছর ধরে কোনো সিরিয়ালই চলে না। তাই স্বাভাবিক ভাবেই প্রতিযোগিতাটাও অনেক বেশি।

কারণ এখনকার দিনে কোনো কোনো সিরিয়াল তিন মাসেও শেষ হয়ে যাচ্ছে। এবার তেমনি শেষের পথে বাংলা বিনোদন জগতের জনপ্রিয় অভিনেত্রী অপরাজিতা আঢ্যর সুপারহিট মেগা ‘জল থই থই ভালোবাসা’ (Jol Thoi Thoi Bhalobasa)। এক ঝাঁক নতুন সিরিয়ালের ভিড়েও দর্শকদের ভালোবাসায় লাগাতার ৯ মাস রমরমিয়ে চলেছে এই ধারাবাহিক। সেইসাথে শুরু থেকেই নিজেদের দখলেই রেখেছিল রাত ৯টার স্লটও।

তবে স্টার জলসায় (Star Jalsha) সোনামনি সাহা আর হানি বাফনার নতুন সিরিয়াল ‘শুভ বিবাহ’র আগমনে  বেশ কিছুদিন ধরেই শোনা যাচ্ছিল খুব তাড়াতাড়ি শেষ হয়ে যাবে, ‘জল থই থই ভালোবাসা’। তবে জনপ্রিয়তা থাকায় অনুরাগীরা আশায় ছিলেন হয়তো নতুন কোনো স্লটে পাঠানো হবে এই সিরিয়ালটিকে। কিন্তু শেষ রক্ষা হল না। এবার সত্যিই বন্ধ হয়ে যাচ্ছে এই জনপ্রিয় মেগা।

আরও পড়ুন: বিদ্যুৎ বিভ্রাট নিয়ে ভোগান্তির দিন শেষ! আর দাঁড়াবে না ট্রেন, কলকাতায় নয়া ইতিহাস মেট্রোর

সিরিয়াল শেষ হয়ে যাওয়ায় স্বাভাবিকভাবেই মন খারাপ এই সিরিয়ালের সমস্ত কলাকুশলীদের। সম্প্রতি এপ্রসঙ্গে সংবাদমাধ্যমে মুখ খুলেছিলেন পৰ্দার তোরা অভিনেত্রী অনুশা বিশ্বনাথন (Anusha Viswanathan)। এদিন অভিনেত্রী বলেছেন, ‘আমার তো একটু মনটা খারাপ। শেষ হয়ে যাচ্ছে বলতে, এখনও শ্যুটিং শেষ হয়নি। তবে সেটে আমরা সকলে খুব মিলেমিশে থাকতাম। একসঙ্গে খাওয়া-দাওয়া করতাম। সেটাকে খুব মিস করব। তবে সব ভালো জিনিসেরই তো একটা শেষ আছে।’

Jol thoi thoi

সেইসাথে এদিন অভিনেত্রী দর্শকদের ধন্যবাদ জানিয়ে আরও বলেন, ‘দর্শকরা যে ভালোবাসা আমাদের দিচ্ছেন, আমি সোশ্যাল মিডিয়ায় দেখছি বলছে যে, ‘কেন এটা শেষ হচ্ছে। আমাদের খারাপ লাগছে।’ আমি তাঁদের উদ্দেশে বলতে চাই, আমরা পরে অবশ্যই এরকম আরও ভালো ভালো কাজ আনব। এই এত যে ভালোবাসা ওঁরা আমাদের দিয়েছেন, তার জন্য আমি কৃতজ্ঞ।’

Anita Dutta
Anita Dutta

অনিতা দত্ত, বাংলা হান্টের কনটেন্ট রাইটার। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতায় স্নাতকোত্তর। বিগত ৪ বছরের বেশি সময় ধরে সাংবাদিকতা পেশার সাথে যুক্ত।

সম্পর্কিত খবর