রণক্ষেত্র হয়ে উঠল সরকারি স্কুল, হেড মিস্ট্রেস আর শিক্ষিকার মধ্যে তুমুল মারপিট! ভাইরাল ভিডিও

   

বাংলা হান্ট ডেস্ক: এবার একটি চাঞ্চল্যকর ঘটনা সামনে এল বিহার (Bihar) থেকে। মূলত, বিহারের রাজধানী পাটনার একটি সরকারি স্কুল থেকে প্রধান শিক্ষিকার সাথে অন্য এক সহ-শিক্ষিকার তুমুল মারামারির একটি ভিডিও সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় (Social Media) সামনে এসেছে। যেটি ইতিমধ্যেই ভাইরালও হয়ে গিয়েছে। স্কুলের ভেতরে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় চলাকালীন হঠাৎই মারামারি শুরু করে দেন তাঁরা।

এমনকি, স্কুলের বাইরেও তাঁরা মারপিট করতে থাকেন। এদিকে, কেউ ওই ঘটনার ভিডিও করে তা সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল করে দেন। এমতাবস্থায়, পাটনার ব্লক শিক্ষা আধিকারিক কেন এমন ঘটনা ঘটল তার কারণ জানতে চেয়েছেন। জানা গিয়েছে, এই ঘটনাটি বিহারের বিহতা ব্লকে অবস্থিত কোরিয়া পঞ্চায়েতের মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ঘটেছে।

মূলত, পারস্পরিক বিরোধকে কেন্দ্র করে প্রধান শিক্ষিকা কান্তি কুমারী ও সহ-শিক্ষিকা অনিতা কুমারীর মধ্যে তর্ক হয়। সেই সময়ে উভয়ের মধ্যে তুমুল মারামারি শুরু হয়ে যায়। এমনকি, একজন শিক্ষিকার মা আরেক শিক্ষিকাকে “জুতোপেটা”-ও করেন। এদিকে, এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে গ্রামবাসীরাও উপস্থিত হয়ে যান।

পুরোনো বিরোধের জেরেই এই ঘটনা: এই প্রসঙ্গে পঞ্চায়েত প্রধান রাকেশ কুমার সংবাদমাধ্যমকে জানান, গত কয়েক মাস ধরে ওই দুই শিক্ষিকার মধ্যে বিরোধ চলছিল। প্রায় পাঁচ মাস আগে দু’জনের মধ্যে ঝগড়া হয়। সেই সময় ব্লক শিক্ষা আধিকারিক এবং পঞ্চায়েতের প্রতিনিধিদের মধ্যে আলোচনা হয় এবং বিষয়টি নিষ্পত্তি হয়। কিন্তু ফের একবার দু’জনের মধ্যে তুমুল লড়াই হয়েছে। দুই শিক্ষককে বদলি করার দাবি জানানো হয়েছে ব্লক শিক্ষা অফিসারের কাছে।

অন্যদিকে, এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে ব্লক শিক্ষা আধিকারিক নবীশ কুমার জানান, দীর্ঘদিন ধরে ওই শিক্ষিকাদের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। এর জেরেই এই ঘটনা ঘটেছে। বিষয়টি নিয়ে তাঁদের কাছে ব্যাখ্যা চাওয়া হয়েছে এবং উচ্চ আধিকারিকদের জানানো হয়েছে। তদন্ত শেষে আসা রিপোর্টের পরিপ্রেক্ষিতে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

Sayak Panda
Sayak Panda

সায়ক পন্ডা, মেদিনীপুর কলেজ (অটোনমাস) থেকে মাস কমিউনিকেশন এবং সাংবাদিকতার পোস্ট গ্র্যাজুয়েট কোর্স করার পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। ২ বছরেরও বেশি সময় ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর