পুলওয়ামা হয়েছে, রাম মন্দিরের পরও হবে দাঙ্গা’, BJP-কে কাঠগড়ায় তুলে দাবি উদ্ধবের? দিলেন প্রমানও

   

বাংলা হান্ট ডেস্ক : গতকাল রবিবার ২৭শে আগস্ট মহারাষ্ট্রের (Maharshtra) হিঙ্গলিতে শিবসেনা নেতা উদ্ধব ঠাকরে (Shiv Sena UBT leader Uddhav Thackeray) একটি র‍্যালির আয়োজন করেন। সেই সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি বেশ কিছু আপত্তিকর কথাবার্তা বলেন। এমনকি তাঁর বক্তব্যে উঠে এসেছে একাধিক জিহাদী মন্তব্য। এদিনের ভাষনে উদ্ধব দাবি করেন পুলওয়ামার সন্ত্রাসবাদী (Pulwama terrorist attack) হামলা বিজেপি নিজের স্বার্থের করিয়াছি। তাঁর মন্তব্যের প্রমাণ হিসাবে তিনি তৎকালীন জম্মু-কাশ্মীরের লেফটেন্যান্ট গভর্নর সত্যপাল মালিক (Satya Pal Malik) এবং তৃণমূল কংগ্রেসের সাংসদ মহুয়া মৈত্রের কথাও তুলে আনেন।

ভোটে জিততে অনেক নিচে নামবে BJP : উদ্ধব এদিন বলেন মহুয়া পশ্চিমবঙ্গের একজন সাংসদ এবং সত্যপাল মালিক জম্বু কাশ্মীরের লেফটেন্যান্ট গভর্নর ছিলেন। এর আগে মালিক মোদির যথেষ্ট ঘনিষ্টর তালিকার ছিলেন। সেই সত্যপাল মালিক এবং মহুয়া মৈত্র খোলাখুলি ভাবে বলেছেন ২০১৯ সালের নির্বাচন জিততেই পুলওয়ামা সন্ত্রাসবাদী হামলার ছক কষে বিজেপি। ভোটে জিততে তারা অনেক নিচে নামতে পারে।’

pulwama

রাম মন্দির তৈরিতে BJP-র কোনও অবদান নেই : উদ্ধব এদিন বলেন, ‘ভারতের হিন্দুদের আরও ভাবা উচিত, বিজেপি যে বারবার পাকিস্তানের ভারত আক্রমণের কথা বলত তা সম্পূর্ণ মিথ্যা। তা প্রমাণও হয়েছে। এছাড়া চাঁদে বাড়ি বানানোর কথাটিও সম্পূর্ণ মিথ্যা। আপনারা রাম মন্দির কে দেখুন, এই ক্ষেত্রে বিজেপির কোন ভূমিকাই নেই। কারণ তারা বাবরি মসজিদ কে ধ্বংস করেনি, রাম মন্দিরের নির্মাণের নির্দেশ দিয়েছিল আদালত। মানুষের টাকায় মন্দির হচ্ছে। সরকারের কোষাগার থেকে খরচ হচ্ছে। রাম মন্দির উদ্বোধন হবে ২০২৪ সালের ১ জানুয়ারি। সত্যপাল মালিক এবং মহুয়া মৈত্র বলেছেন লক্ষ লক্ষ হিন্দু আসবেন অযোধ্যায় আসবেন বাসে এবং ট্রেনে করে। রাম মন্দির উদ্বোধন হবে। আবার তারা বাসে এবং করেই ফিরে যাবেন। কিন্তু যখনই সেই ট্রেন বা বাস কোন মুসলিম এলাকার পাশ দিয়ে যাবে তখনই তাতে পরিকল্পিত আক্রমণ অ্যাটাক করা হবে যাতে আরোও বেশি করে দাঙ্গা ছড়িয়ে পড়ে।

চাঁদে বাড়ি করে কী লাভ? মহারাষ্ট্র প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেন, ‘আগামী নির্বাচনের প্রচারে বিজপি এটা বলতে পারে যে তারা আপনাকে চাঁদে বাড়ি তৈরি করে দেবেন। একবার ভাবুন চাঁদে বাড়ি তৈরি করে কী লাভ হবে আপনার? খুব বেশি হলে আপনার যে বর্তমান বাড়িটি আছে সেটি আপনাকে বন্ধক রাখতে।’

আরও পড়ুন : সরকারি কর্মীর মৃত্যুতে চাকরি পাওয়া সন্তানের বংশগত অধিকার নয়! ঐতিহাসিক রায় হাইকোর্টের

পুলওয়ামা হামলা : ২০১৯ সালের ১৪ই ফেব্রুয়ারি সিআরপিএফ জওয়ানদের একটি কনভয় শ্রীনগরের ৪৪ নম্বর ন্যাশনাল হাইওয়ে দিয়ে যাচ্ছিল। এই কনভয়েই হয় সন্ত্রাসবাদী হামলা। ২২ বছর বয়স্ক আদিল আহমদ দার একজন জয়েশ ই মোহাম্মদের জঙ্গি। কাশ্মীরের কাকাপুরা এলাকায় তার গাড়ি সিআরপিএফ জওয়ানদের বাসে আঘাত করে। ঘটে মর্মামন্তিক বিস্ফোরণ। চোখের নিমেষে শেষ হয়ে যায় ৪০ জন সিআরপিএফ জওয়ান।

Avatar
Sudipto

সম্পর্কিত খবর