একের পর এক ঘূর্ণাবর্ত! দুর্গাপুজোর আগে বঙ্গোপসাগরে বাড়বে চাপ, নাজেহাল হবে আমজনতা

বাংলাহান্ট ডেস্ক : আবহাওয়ার খামখেয়ালিপনায় নাজেহাল বঙ্গবাসী। ভাদ্র মাসে একের পর এক নিম্নচাপের ফলে বৃষ্টি হয়েছে দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন অংশে। এই অবস্থায় সবার প্রশ্ন তবে কি আসন্ন দুর্গা পুজোতেও ভাসতে চলেছে বাংলা? আবহাওয়াবিদরা কিন্তু স্বস্তির কথা শোনাতে পারছেন না এখনই। পুজোর মুখে রাজ্যে আঘাত হানতে পারে প্রবল ঘূর্ণিঝড়।

অন্তত আবহাওয়া মডেল সেরকম পূর্বাভাসই দিচ্ছে। আবহাওয়া দপ্তরের পূর্বাভাস অনুযায়ী, বঙ্গোপসাগরে একটি ঘূর্ণাবর্ত তৈরির সম্ভাবনা রয়েছে অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহে। এই ঘূর্ণাবর্তটি প্রবেশ করতে পারে পশ্চিমবঙ্গ থেকে অন্ধ্রপ্রদেশের মধ্যে যেকোনও ভূভাগে। এই ঘূর্ণাবর্তটি যদি ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয় তাহলে তার নাম হতে চলেছে ‘তেজ।’

আরোও পড়ুন : অবসরপ্রাপ্ত কর্মীদের এবার সোনায় সোহাগা! মিলবে মোটা অঙ্কের টাকা, নয়া চমক রাজ্য সরকারের

বর্ষা শেষ হওয়ার সাথে সাথেই ঘূর্ণিঝড়ের মরশুম শুরু হতে চলেছে বঙ্গোপসাগরে। পুজোর আগেই অক্টোবরে একটি ঘূর্ণিঝড় সৃষ্টি হতে পারে বঙ্গোপসাগরে। এই ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাব প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে পড়তে পারে বাংলার পুজোর বাজারে। এই ঘূর্ণাবর্ত ভূভাগে প্রবেশ করতে পারে ৪–১০ অক্টোবরের মধ্যে।

আরোও পড়ুন : ভোট টানতে পাকিস্তানের গান ব্যবহার! কংগ্রেসের বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ, তুলকালাম কাণ্ড

আবার থাইল্যান্ড সাগর থেকে একটি ঘূর্ণাবর্ত অক্টোবরের শেষে বা সেপ্টেম্বরের শুরুতে প্রবেশ করতে পারে বঙ্গোপসাগরে। এটি শক্তি সঞ্চয় করে ঘূর্ণিঝড়ে রূপান্তরিত হতে পারে। আবহাওয়াবিদরা জানাচ্ছেন এটি কোথা থেকে প্রবেশ করবে বা আদৌ এর পরিস্থিতি কী হবে সেই ব্যাপারে এখন কিছু বলা সম্ভব নয়।

Cyclone

আবহাওয়াবিদ রবীন্দ্র গোয়েঙ্কার কথায়, বেশকিছু শর্তের উপর নির্ভর করে একটি ঘূর্ণাবর্ত ঘূর্ণিঝড়ে রূপান্তরিত হবে কিনা। আগে থেকে এই ব্যাপারে ধারণা দেওয়া সম্ভব নয়। তবে অক্টোবরে পশ্চিমবঙ্গে ঘূর্ণিঝড় হওয়ার ইতিহাস খুব একটা নেই। ঘূর্ণিঝড়গুলি সাধারণত দক্ষিণ ভারতের দিকে চলে যায়।

Avatar
Soumita

আমি সৌমিতা। বিগত ৩ বছর ধরে কর্মরত ডিজিটাল সংবাদমাধ্যমে। রাজনীতি থেকে শুরু করে ভ্রমণ, ভাইরাল তথ্য থেকে শুরু করে বিনোদন, পাঠকের কাছে নির্ভুল খবর পৌঁছে দেওয়াই আমার একমাত্র লক্ষ্য।

সম্পর্কিত খবর