কলকাতার গরমে নাজেহাল? পাড়ি দিন উত্তরাখণ্ডে! এই শক্তিপীঠে পা দিলেই শান্ত হবে শরীর, মন

   

বাংলাহান্ট ডেস্ক : গত সপ্তাহে বিক্ষিপ্তভাবে বৃষ্টি কিছুটা হলেও শান্তি দিয়েছে দক্ষিণবঙ্গের মানুষকে। তবে চলতি সপ্তাহ থেকে ফের একবার তাপমাত্রার পারদ ঊর্ধ্বমুখী। ইতিমধ্যেই রাজ্যের বিভিন্ন স্কুলে পড়ে গেছে গরমের ছুটি। অনেকেই তাই এই সময়টাতে ঘুরতে যেতে চাইছেন বাইরে কোথাও। গরমকালে বাঙালির প্রিয় ডেসটিনেশনে হয়ে ওঠে বিভিন্ন পাহাড়ি জায়গাগুলি।

তবে আজ আপনাদের এই প্রতিবেদনে এমন একটি জায়গা সম্পর্কে বলতে চলেছি যেখানে গেলে আপনার শরীর ও মন, দুইই শান্তি পাবে। উত্তরাখণ্ডের (Uttarakhand) শৈল শহর নৈনিতাল (Nainital) বিখ্যাত তার প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যের জন্য। নৈনিতাল অবস্থিত সমতল ভূমি থেকে প্রায় ১৯৩৮ মিটার উঁচুতে। কিংবদন্তি প্রচলিত আছে এখানে নাকি একত্রে বাস করতেন শিব ও সতী।

আরোও পড়ুন : ২৮৩৯০ কোটি টাকার মালিক সঞ্জীব গোয়েঙ্কার বিদ্যের দৌড় কতদূর? দেখুন শিল্পপতির শিক্ষাগত যোগ্যতা

সতীর চোখ নাকি পড়েছিল এখানেই। সেখান থেকেই এই শৈল শহরের নাম হয়েছে নৈনি। মার্চ থেকে জুন মাস পর্যন্ত নৈনিতাল ঘুরতে যাওয়ার সব থেকে আদর্শ সময়। তবে পর্যটকরা এখানে গোটা বছরই আসেন। মোটের উপর সারা বছর মনোরম থাকে এখানকার আবহাওয়া। নৈনিতালের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য অবর্ণনীয়। এছাড়াও এখানে রয়েছে অপূর্ব নৈনিলেক।

আরোও পড়ুন : আমজনতার জন্য নয়া উদ্যোগ সরকারের! আসছে নতুন স্কিম, পাঁচ বছরেই হাতে আসবে দ্বিগুণ টাকা

অর্ধচন্দ্রাকার আকৃতির এই লেকটি অত্যন্ত জনপ্রিয় পর্যটকদের কাছে। এছাড়াও ঘুরতে যাওয়ার জন্য রয়েছে নয়নাদেবী মন্দির, নন্দাদেবী শৃঙ্গ, নৈনি শৃঙ্গ বা চায়না পিক। পাশাপাশি রোপওয়ে চড়ে স্নো ভিউ পয়েন্ট ভিউ দেখতে দেখতে হারিয়ে যাবেন রোমাঞ্চের জগতে। অন্যান্য দর্শনীয় স্থানের মধ্যে রয়েছে ডোরেথিজ মিট, কিলরুরি, হনুমান গড়ি, ষ্টেট আবজার্ভেটরি, ল্যান্ডস এন্ড, সেন্ট জন্স চার্চ এবং গাধান কুনকিইয়প নিংগম্পা।

Blog Cover Ntl

নৈনিতাল থেকে ২২৮৬ মিটার উচ্চতায় অবস্থিত রয়েছে মুক্তেশ্বর। এই মুক্তেশ্বর যেন একটুকরো স্বর্গ। আপেল, পাম, অ্যাপ্রিকট ঘেরা মুক্তেশ্বর থেকে সুন্দরভাবে দেখা যায় হিমালয়ের অপরূপ দৃশ্য। নৈনিতালের মল রোডে মেলে সুস্বাদু খাবার ও হরেকরকম পণ্যের বাহার। এদিক ওদিক ঘোরার পর মল রোডে একটু খাওয়া দাওয়া আর কেনাকাটা করে শেষ করতে পারেন আপনার নৈনিতাল ভ্রমণ।

Avatar
Soumita

আমি সৌমিতা। বিগত ৩ বছর ধরে কর্মরত ডিজিটাল সংবাদমাধ্যমে। রাজনীতি থেকে শুরু করে ভ্রমণ, ভাইরাল তথ্য থেকে শুরু করে বিনোদন, পাঠকের কাছে নির্ভুল খবর পৌঁছে দেওয়াই আমার একমাত্র লক্ষ্য।

সম্পর্কিত খবর