খরচ মাত্র ১২০০ টাকা! দু’দিনের ছুটিতে টুক করে ঘুরে আসুন পশ্চিমবঙ্গের “হ্যাপি ভিলেজে”, ফুরফুরে হবে মন

   

বাংলাহান্ট ডেস্ক : হাঁসফাঁস করা গরমে নাভিশ্বাস উঠছে কলকাতাবাসীর। মাঝে মধ্যে দু এক পশলা বৃষ্টিতে সাময়িক স্বস্তি মিললেও গরমের হাত থেকে রেহাই নেই এখনও পর্যন্ত। তাই টুক করে পাহাড়ে দুদিন কাটিয়ে আসাকেই বুদ্ধিমানের কাজ বলে মনে করছে আমজনতা। আর এদিকে পাহাড় ভ্রমণ মানেই দার্জিলিং নাহলে সিকিম।

তবে, একথা ভুলে গেলে চলবে না যে দার্জিলিং, সিকিম ছাড়াও এমন অনেক পাহাড়ি গ্রাম আছে, যেখানে গেলেই মিলবে অপার শান্তি। শুধু তাই নয়, এইসব অফবিট ডেস্টিনেশন ভ্রমণের ক্ষেত্রে খরচটাও অনেক কম। আজকের প্রতিবেদনে আমরা এমনই এক হিল স্টেশন নিয়ে আলোচনা করব যাকে এককথায় বলে, ‘হ্যাপি ভিলেজ’ (Happy Village)।

Kharka Gaon

কালিম্পংয়ের খুবই কাছে অবস্থিত এই ‘হ্যাপি ভিলেজ’। এই পাহাড়ি গ্রামের নাম খড়কাগাঁও। আসলে খড়কা শব্দের অর্থ গবাদিপশুর চরণভূমি। এখনও পর্যন্ত জায়গাটি বিশেষ পরিচিতি না পেলেও একবার বেড়াতে গেলেই আপনি খড়কাগাঁওয়ের (Kharkha Gaon) প্রেমে পড়ে যাবেন। ভাগ্য ভালো থাকলে কাঞ্চনজঙ্ঘা দর্শন হয়ে যেতে পারে।

রাস্তার দুপাশে পাইন বার্চ গাছের সারি। কাছে পিঠে রয়েছে একাধিক ঝর্না। তবে, এই প্রসঙ্গে বলে রাখা ভালো, বছরের যে কোন সময়েই খড়কাগাঁও আসা যায়। একেক ঋতুতে খড়কাগাঁওয়ের রূপ এক এক রকম। চারিদিকে যেন শুধুই সবুজের সমারোহ। এখান থেকে কাছেই মানেদারা ভিউ পয়েন্ট। এছাড়াও, পঞ্চমী ফলসেও যেতে পারেন।

Kharka Gaon

এনজিপি থেকে গাড়িতে খরকাগাঁও সাড়ে তিনঘণ্টা মতো সময় লাগে। খড়কাগাঁওয়ে অবস্থিত হোম স্টে গুলোর খরচ ১২০০-১৩০০ টাকার মধ্যেই। এখানে বলে রাখা ভালো যারা ওয়াইন খেতে ভালোবাসেন তারা একবার এখানকার লোকাল ওয়াইন টেস্ট করে দেখতে পারেন। ঘরোয়া খাবারের সাথে মন ভালো করা আতিথেয়তার মিশেলে হোম স্টে গুলোও যেন স্বর্গ।

 

 

Avatar
Soumita

আমি সৌমিতা। বিগত ৩ বছর ধরে কর্মরত ডিজিটাল সংবাদমাধ্যমে। রাজনীতি থেকে শুরু করে ভ্রমণ, ভাইরাল তথ্য থেকে শুরু করে বিনোদন, পাঠকের কাছে নির্ভুল খবর পৌঁছে দেওয়াই আমার একমাত্র লক্ষ্য।

সম্পর্কিত খবর