পাত্তা পাবেনা দীঘা-পুরী, মাত্র ২০০০ টাকার বিনিময়ে ঘুরে আসুন এই ঐতিহাসিক স্থান থেকে

বাংলা হান্ট ডেস্ক : শীত এসে গিয়েছে। উত্তুরে হিমেল বাতাস জানান দিচ্ছে শীত ঋতুর (Winter) আগমন। এই ঋতুতে খাওয়া দাওয়া যেমন জম্পেশ হয় তেমনই ভ্রমণপ্রিয় (Travel) বাঙালি শীতের মিষ্টি রোদ গায়ে মেখে বেরিয়ে পড়েন ঘুরতে। শীত চলে আসায় আবহাওয়া (Wheather) এবং পরিবেশে বেশ মিষ্টি মিষ্টি ভাব চলে এসেছে। বিশেষ করে শীতের শুরুতে। কিন্তু ভ্রমণ বৃত্তান্তে কোথায় যাওয়া যায় ভাবছেন তো? আজ এক দারুণ জায়গা নিয়ে এসেছি আপনাদের জন্য।

সাধারণত বাঙালির ঘুরতে যাওয়া মানেই ওই দীপুদা, অর্থাৎ দীঘা-পুরী-দার্জিলিং। কিন্তু এক জায়গা যেতে কাহাতকই আর ভালো লাগে। এবার শীতে থাকছে এক দারুণ গন্তব্য। ব্যাগ পত্তর গুছিয়ে সেখানে ঘুরতে গেলে মন্দ হয়না। কলকাতার (Kolkata) কাছেই রয়েছে এই স্থান। একদম কম খরচে আরামসে ঘুরে আসা যায় সেখান থেকে।

ডেস্টিনেশন: শুশুনিয়া পাহাড়, বাঁকুড়া (Susunia Pahar, Bankura)

দুই একদিনের ছুটির জন্য আইডিয়াল এই স্থান। যদিও বাঁকুড়ার নাম করলে কেবল মুকুটমণিপুর আর বিষ্ণুপুরের কথাই মনে আসে অনেকের। কিন্তু ধীরে ধীরে অফবিট ম্যাপে স্থান করে নিয়েছে শুশুনিয়া।

আরও পড়ুন : শুভশ্রীর কোলজুড়ে আসবে ৪ ছেলে ৮ মেয়ে! ভবিষ্যৎবাণী শুনে আঁতকে উঠলেন নায়িকা

29rccmak tents at base camp of susunia hill

শুশুনিয়া পাহাড় (Susunia Pahar) যেমন সুন্দর তেমনি আকর্ষণীয়। শহরের কংক্রিটের জঙ্গল থেকে বেরিয়ে ঘন সবুজ বনানী আপনার ভালো লাগতে বাধ্য। এছাড়া এখানে রয়েছে এক পবিত্র ঝর্না। পাহাড়ের গায়ে দেখতে পাবেন প্রাচীন শিলালিপি। পাহাড়ের ওপর দুর্গম অঞ্চলে রয়েছে রাজা চন্দ্রবর্মনের শিলালিপি। তাহলে আর দেরি কিসের, শীতের মিঠে রোদ মেখে বেরিয়ে পড়ুন শুশুনিয়া পাহাড় ঘুরতে।