টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

মঙ্গলবার শেষ হচ্ছে বিধিনিষেধের মেয়াদ, উঠে যাবে নিষেধাজ্ঞা? কি জানাচ্ছে সরকারি সূত্র?

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ শেষ পর্যন্ত ৫৯ দিন পরে রাজ্যে ফের একবার পাঁচ হাজারের নিচে নেমেছে করোনা সংক্রমণ। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন ৪ হাজার ২৮৬ জন । একদিনে মারণ ভাইরাস প্রাণ কেড়েছে ৮১ জনের । তবে আশার খবর হল শেষ ২৪ ঘন্টায় সুস্থ হয়েছেন প্রায় ৪২৩১ জন মানুষ। যার জেরে এখন কিছুটা স্বস্তিতে রাজ্য। প্রথমে লকডাউন লাগু করতে না চাইলেও রাজ্যে সংক্রমণ কুড়ি হাজার ছাড়ানোয় শেষ পর্যন্ত গত ১৬ মে ফের একবার কড়া লকডাউন জারি করতে হয়েছিল রাজ্য সরকারকে। প্রথম পনেরো দিন লকডাউনের পর সুফল কিছুটা মিললেও সংক্রমণ তখনো ছিল ১০ হাজারের কাছাকাছি।

তাই কিছুটা ছাড় দিলেও শেষ পর্যন্ত আরও ১৫ দিনের জন্য লকডাউন বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকার। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, তাতে সত্যিই সুফল মিলেছে। এখন নতুন সংক্রমণের সংখ্যা অনেকটাই কম। যার জেরে প্রশ্ন উঠেছে তবে কি এবার লকডাউন তুলে নেবে সরকার। কারণ দ্বিতীয় দফার বাকি লকডাউন শেষ হতে রয়েছে মাত্র ৪৮ ঘন্টার কিছু বেশি সময়। এই মুহূর্তে তাই সরকার কি সিদ্ধান্ত নেয় তার দিকেই তাকিয়ে রয়েছে সকলে। এর আগে অর্থনীতির কথা মাথায় রেখে বেলা বারোটা থেকে সোনার দোকান এবং বিকেল পাঁচটার পর থেকে রাত আটটা পর্যন্ত হোটেল-রেস্তোরাঁ গুলিকে খোলার অনুমতি দিয়েছিল রাজ্য সরকার। যদিও রেট্রো বারগুলিকে এখনো পর্যন্ত খোলার অনুমতি দেওয়া হয়নি।

কিন্তু রাজ্যে লকডাউন যত বাড়বে ততই ধাক্কা খাবে অর্থনীতি। তাই সংক্রমণ এখন যখন কিছুটা আয়ত্তের মধ্যে, আরো বেশ কিছু ছাড় দিতে পারে রাজ্য সরকার। সরকারি সূত্রে খবর অন্তত এমনটাই। যদিও প্রশাসন সূত্রে জানানো হয়েছে, এখনই বিধি-নিষেধ পুরোপুরি তুলতে চাইছে না মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার। যেমন লোকাল ট্রেন চালানোর এখনই কোন সম্ভাবনা নেই বলেই মনে করা হচ্ছে। গত ২৪ ঘন্টাতেও উত্তর ২৪ পরগনায় সংক্রমিত হয়েছেন ৭৯২ জন, যা যথেষ্ট আশঙ্কাজনক। আর সেই কারণেই এখনই রেল চলাচল শুরু করতে নারাজ রাজ্য। তবে প্রশাসনিক সূত্রে খবর, এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন খোদ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই। তাকে জানানো হয়েছে রাজ্যের অর্থনৈতিক পরিস্থিতি আশঙ্কাজনক। আর তাই সে কথা মাথায় রেখেই আগামীদিনের সিদ্ধান্ত নেবে রাজ্য।

Related Articles

Back to top button