টাইমলাইনবিশেষ

লকডাউনে কাজ খুইয়ে সর্বশান্ত মহিলা নিজে একবেলা খেয়ে ভরাচ্ছেন ১৩ টি কুকুরের পেট

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ করোনা ভাইরাসের (Coronavirus) সংক্রমণের কারণে গোটা বিশ্ব ভয়াবহ সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। ভারতেও (India) করোনার কারণে ডাকা লকডাউনের (Lockdown) অধিকাংশ মানুষের জীবনে সোজাসুজি প্রভাব পড়েছে। মার্চ-এপ্রিল মাসেই দেখা গিয়েছিল। দেশের বিভিন্ন রাজ্য থেকে পরিযায়ী শ্রমিকদের পলায়ন দেখতে পেরেছিলাম আমরা। আবার অনেকেই এমন ছিল যারা নিজে ন খেয়ে অন্য জনের পেট ভরেছে। এরকমই একটি মামলা চেন্নাই (Chennai) থেকে সামনে এসেছে। সেখানে এক মহিলা নিজে একবেলা খেলে তাঁর ১৩ টি কুকুরকে (Dog) দুবেলা খাইয়েছেন।

এই কাহিনী চেন্নাইয়ের মেইলপোর লালা থোটম কলোনির ছোট ঘরে থাকা এক ৩৯ বছর বয়সী মহিলার। ওই মহিলার নাম মিনা। জিনি মানুষের বাড়িতে রান্না করার কাজ করেন। উনি কুকুরদের খুব ভালোবাসেন। আর উনি নিজের বাড়িতেই অনেক গুলো কুকুর পোষেন। উনি নিজের কুকুরদের এতটাই ভালো বাসেন যে, তাঁদের সাথে থাকার জন্য তিনি বিয়ে পর্যন্ত করেন নি।

দেশে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের কারণে মার্চ মাস থেকে লকডাউন জারি হয়েছিল। মিনা বুঝতে পেরেছিল যে, এই সঙ্কটের সময়ে খাদ্য সঙ্কটে পড়তে হবে তাকে, আর সেই কারণে সে যেই বাড়ি গুলোতে কাজ করত, সেখান থেকে অ্যাডভান্স বেতন চেয়েছিল। কিন্তু মাত্র দুজনই তাকে অগ্রিম বেতন দিয়েছিল।

ওই অগ্রিম বেতন নিয়ে মিনা বাড়িতে চাল আর কুকুরের খাবার কিনে রাখে। এরপর মিনা নিজের খাওয়া কমিয়ে দেয় কুকুরের পেট ভরানোর জন্য। মিনা নিজে না খেয়ে থাকতে পারবে, কিন্তু তাঁর কুকুরদের খালি পেটে দেখতে পারবে না। মিনা জানান, জীব সেবা করলে ভগবানের দর্শন পাওয়া যাবে। লকডাউনের আগে সে যাদের বাড়িতে কাজ করত, সেখান থেকে একটু একটু করে খাবার এনে কুকুরদের পেট ভরত।

মিনা জানান, ‘আমি অত খেতে ভালোবাসি না। আমি যাই খেই না কেন, কুকুরদের সাথে ভাগ করে নিই। কিন্তু এখন আমি নিজের থেকেও কুকুরদের বেশি দেখভাল করি। আর আমি একবেলা খেয়ে ওদের পেট ভরতি রাখি।” মিনা শুধু নিজের পোষা কুকুরদেরই না, রাস্তার কুকুরদেরও খেয়াল রাখে। তবে এখন লকডাউন উঠে আনলকের পর্ব শুরু হওয়ার আপাতত স্বস্তি মিনার এই ছোট সংসারে।

Back to top button
Close