চাকা থেকে শুরু করে সিট, সবটাই কাঠের! অভিনব সাইকেল বানিয়ে তাক লাগালেন শিলিগুড়ির যুবক

বাংলাহান্ট ডেস্ক : কাঠের চাকা, কাঠের সিট সব মিলিয়ে বলা যায় একটা আস্ত কাঠের সাইকেল। অবাক লাগছে ? নিশ্চয়ই ভাবছেন এমনটা আবার হয় নি ? কিন্তু, প্রাথমিকভাবে অবিশ্বাস্য মনে হলেও সম্পূর্ণ কাঠ দিয়েই এক অভিনব সাইকেল (Cycle) বানিয়ে ফেলেছেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গের শিলিগুড়ি (Siliguri) শহরের কাঠমিস্ত্রী সতীশ সরকার।

এদিকে, শিলিগুড়ির ফুলবাড়ি একনম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের অম্বিকানগর এলাকার এই কাঠমিস্ত্রী কে ঘিরে রীতিমতো শোরগোল পড়ে গিয়েছে গোটা এলাকায়। তিনি জানিয়েছেন, গামারী ও সেগুন কাঠ দিয়ে তৈরী এই সাইকেলটি বানাতে তার সময় লেগেছিল তিন মাস। বলা বাহুল্য, একটা সময় মানুষের যাতায়াতের জন‍্য সাইকেল একমাত্র সাথী থাকলেও এখন এর অস্তিত্ব কমে যাচ্ছে।

বর্তমান কর্মব্যস্ততার যুগে মানুষ মোটরবাইকের উপরেই বেশী ভরসা রাখছেন। একই সঙ্গে তেল খরচের কথা মাথায় রেখে আবার ব‍্যাটারিচালিত স্কুটি বা মোটর বাইকও মিলেছে। তবে ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে সেই পুরনো দিনের সাথী সাইকেল দেখানোর জন‍্যই স্মৃতি হিসেবে এই কাঠের সাইকেলটি তৈরি করেছেন ফুলবাড়ির এই হস্তশিল্পী।

আরোও পড়ুন : “আমায় ভালোবাসার জন্য সলমনকে…”, এবার ভাইজানের কেশহীন লুক নিয়ে মন্তব্য শাহরুখের

তবে, এই প্রসঙ্গে বলে রাখা ভালো যে সাইকেলটি দেখলে আপাত দৃষ্টিতে মনে হওয়া কঠিন যে এটি আসল নাকি নকল। তবে, তার সৃষ্টিকর্ম শুধু যে সাইকেলেই সীমাবদ্ধ আছে তা কিন্তু নয়। আরোও নানান ধরণের দেবদেবীর মূর্তিও কাঠ দিয়ে খোদাই করে তৈরী করেছেন এই অভিজ্ঞ হস্তশিল্পী। বাড়িকে মোটামুটি মিউজিয়াম বানিয়ে ফেলেছেন তিনি।

img 20230828 13061837

ইতিমধ্যেই, সতীশ সরকার সংবাদ মাধ‍্যমকে জানান, তিনি কাঠমিস্ত্রির কাজ করেন। ফলে দিনরাত কাঠ হাতুরি বাটাল নিয়েই সময় কাটে। ওই কাজের মাঝেই এই সমস্ত মডেল তৈরি করেন তিনি। আর সাইকেলটি তিনি খুব শখ করে তৈরি করেছেন। যা দেখতে অনেকেই তার বাড়িতে আসেন এবং ছবি তুলে বেশ আনন্দ পান।

 

Avatar
Soumita

আমি সৌমিতা। বিগত ৩ বছর ধরে কর্মরত ডিজিটাল সংবাদমাধ্যমে। রাজনীতি থেকে শুরু করে ভ্রমণ, ভাইরাল তথ্য থেকে শুরু করে বিনোদন, পাঠকের কাছে নির্ভুল খবর পৌঁছে দেওয়াই আমার একমাত্র লক্ষ্য।

সম্পর্কিত খবর