৫ বছরে ১৬৬ অপরাধীর এনকাউন্টার, আরও এমন অভিযান চলবে বলল যোগীর পুলিশ

বাংলাহান্ট ডেস্ক : একটা সময় অপরাধ মূলক কর্মকাণ্ড মাত্রা ছাড়ায় উত্তর প্রদেশে (UP))। তারপর সরকার পরিবর্তন হয়। শুরু হয় যোগি আদিত্যনাথের (Yogi Adityanath) রাজত্ব। চলতি বছর মার্চে সংখ্যাটা ছিল ১৩৫। আর তার মাত্র সাত মাসের মাথায় তা বেড়ে হয় ১৬৬। উত্তরপ্রদেশে অপরাধমূলক কাজকর্ম নিয়ন্ত্রণে আনতে এভাবেই পুলিস এনকাউন্টার অভিযান চালায়।

   

মুখ্যমন্ত্রী যোগি আদিত্যনাথ (Yogi Adityanath) জানান, এই অপারেশন চলবে। ২০১৭ সালে প্রথমবার রাজ্যে ক্ষমতায় এসেই চালু করেন অপারেশন ‘জিরো টলারেন্স।’ উত্তর প্রদেশ প্রশাসন সূত্রে খবর ওই বছরের মার্চ থেকে এ বছরের অক্টোবর মাস পর্যন্ত পুলিসের সঙ্গে সংঘর্ষে নিহত হয়েছে মোট ১৬৬ দুষ্কৃতী। তার মধ্যে ৩৬ জন মারা গেছে বিগত সাত মাসেই। বিশেষজ্ঞ মহলের মতে এমন নজির সেনা, আধা সেনা এবং কোনও রাজ্য পুলিসের নেই।

মুখ্যমন্ত্রী আদিত্যনাথ একাউন্টারে মৃত্যু হয়েছে এমন দাবি করলেও তা মানতে নারাজ মানবাধিকার গোষ্ঠী সংগঠনগুলি। তাদের দাবি, অনেক ক্ষেত্রেই মিথ্যা সংঘর্ষের নাটক সাজিয়ে ঠান্ডা মাথায় খুন করছে পুলিস। অর্থাৎ বিচার বহির্ভূত হত্যা।

সেই অভিযোগ একেবারে উড়িয়ে দিয়েছেন যোগি (Yogi Adityanath)। তিনি হিসাব দিয়েছেন সংঘর্ষে আহত হয়েছে ৪৪৫৬ জন অপরাধী। নিহত হয়েছেন ১৩ জন পুলিস কর্মীও। আহত পুলিসের ১৩৩৬ জন।

উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী এদিন আরও জানান, এখনও পর্যন্ত মাফিয়া নিয়ন্ত্রণ আইন উপর ভিত্তি করে ৫৯ হাজার অপরাধীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। বাজেয়াপ্ত করা হয় ৪৪৪০ কোটি টাকার বেআইনি সম্পত্তি। গতকাল পুলিস দিবস উপলক্ষ্যে লখনউতে এক অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে এই সমস্ত তথ্য সামনে আনলেন যোগি আদিত্যনাথ।