সন্দেশখালিতে হামলার ঘটনার পর থেকেই নিখোঁজ ৩-৪ জন ED অফিসার! কোথায় তারা? তোলপাড় রাজ্য

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ রেশন দুর্নীতি মামলায় (Ration Scam) ইডির (Enforcement Directorates) অভিযান ঘিরে তোলপাড় উত্তর ২৪ পরগনার (North 24 parganas) সন্দেশখালিতে। তৃণমূল নেতা শেখ শাহজাহানের বাড়িতে তল্লাশিতে গিয়ে তৃণমূল নেতার অনুগামীদের হাতে আক্রান্ত খোদ কেন্দ্রীয় গোয়েন্দারা। শাসকদলের কর্মী-সমর্থকদের মার খেয়ে এলাকা ছাড়া ইডি আধিকারিক ও কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানরা। ভাঙচুর করা হয় গাড়িও। যখন এই ঘটনা নিয়ে তোলপাড় রাজ্য-রাজনীতি, ঠিক সেই সময় সামনে চাঞ্চল্যকর তথ্য।

   

সূত্রের খবর, এদিন ওই তৃণমূল নেতার বাড়িতে অভিযানে যায় ইডির আট সদস্যের একটি দল। তাদের মধ্যে দুজনের মাথায় আঘাত করা হয়। এই খবর সামনে আসছিল। এরই মধ্যে জানা যাচ্ছে, হামলার পর তদন্তে যাওয়া ৩-৪ জন ইডি অফিসারের আর কোনও খোঁজ মিলছে না। ইতিমধ্যেই এই নিয়ে এফআইআর করা হয়েছে। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনায় দিল্লিতে ইডির শীর্ষ আধিকারিক ও কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানদের মধ্যে শুরু হয়েছে বৈঠক। ওই নিখোঁজ আধিকারিকদের খোঁজ পাওয়ার জন্য চেষ্টা চালানো হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে।

কি ঘটেছিল? শুক্রবার সাতসকালে ইডির অভিযান ঘিরে একেবারে ধুন্ধুমার বেঁধে যায় উত্তর ২৪ পরগনার সন্দেশখালিতে। এদিন উত্তর ২৪ পরগনায় দুই তৃণমূল নেতার (TMC Leaders) বাড়িতে হানা দিয়েছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। আর সেই খবর ছড়িয়ে পড়তেই শোরগোল।

ইডি আধিকারিকদের ওপর হঠাৎ চড়াও তৃণমূল নেতার অনুগামীরা। কেন না জানিয়ে হানা দিয়েছে ইডি? এই প্রশ্ন তুলেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন বিক্ষোভকারীরা। ক্রমশ্য উত্তপ্ত হতে থাকে পরিস্থিতি। একসময় সবকিছু এতটাই হাতের বাইরে চলে যায় যে এলাকা ছাড়া হতে বাধ্য হন ইডি আধিকারিকরা। ইডিকেই এলাকা ছাড়া করে তৃণমূল নেতার অনুগামীরা (TMC Workers)।

শুক্রবার সকালে ইডির একটি দল উত্তর চব্বিশ পরগনার বনগাঁ পুরসভার প্রাক্তন চেয়ারম্যান শঙ্কর আঢ্যের শ্বশুরবাড়িতে হানা দেয়। ওদিকে অন্য একটি দল পৌঁছে যায় সন্দেশখালির এক তৃণমূল নেতা শাহজাহান শেখের বাড়ি। শাহজাহানের সরবেড়িয়ার বাড়িতে হানা দেন ইডির আধিকারিকরা।

sandeshkhali

তবে তৃণমূল নেতার বাড়িতে গিয়ে বারংবার ডাকাডাকি সত্ত্বে সাড়া মেলেনি কারও। সূত্রের খবর এরপর ১ ঘণ্টা অপেক্ষার পর কেন্দ্রীয় বাহিনী তল্লাশির জন্য বাড়ির তালা ভাঙার কাজ শুরু করে। আর তাতেই তাদের ওপর চড়াও হয় উত্তপ্ত জনতা। উত্তর ২৪ পরগনা জেলা পরিষদের মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ কর্মাধ্যক্ষের শেখ শাহজাহানের অনুগামীরা ভীড় করে ফেলে গোটা এলাকায়।

হাজার হাজার তৃণমূল কর্মী-সমর্থক শাহজাহানের বাড়ির সামনে জড়ো হন। ইডি হানার বিরুদ্ধে শুরু হয় বিক্ষোভ। এখানেই শেষ নয়, ইডির আধিকারিকদের মারধরও করেন তৃণমূল নেতার অনুগামীরা। মেরে মাথা ফাটিয়ে দেওয়া হয় ইডি আধিকারিকদের। ভাঙচুর চলে ইডির গাড়ি। এরপর একদম ধাওয়া করে ইডি আধিকারিকদের এলাকা ছাড়া করেন কয়েক হাজার বিক্ষোভকারী। সাথে কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানদের ওপরও হামলা চালানো হয় বলে অভিযোগ। তৃণমূলের কর্মীদের হাতে আক্রান্ত হন সাংবাদিকরাও।

সম্পর্কিত খবর