টাইমলাইনভারতভিডিও

দুর্ঘটনাগ্রস্ত বাবা! ৭ বছরের ছেলে শুরু করল ডেলিভারি বয়ের কাজ, স্কুল শেষে ৫ ঘণ্টা চালায় সাইকেল

বাংলা হান্ট ডেস্ক: প্রত্যেককেই জীবনযুদ্ধে টিকে থাকার জন্য প্রতিনিয়ত লড়াই করতে হয়। তবে, এই লড়াইয়ের যাত্রা সকলের জন্য সমান হয় না। বরং কিছুজনের ক্ষেত্রে তা হয় কণ্টকাকীর্ণ। এমনকি কেউ কেউ শৈশব কাল থেকেই বাস্তবের মাটিতে কঠিন সংগ্রামের মুখোমুখি হন। আর তাঁদেরকে দেখি অনুপ্রাণিত হন সকলে। সেই রেশ বজায় রেখেই সম্প্রতি এমন একটি ঘটনা সামনে এসেছে যা জানার পর আবেগাপ্লুত হয়েছেন সবাই। পাশাপাশি, এই সংক্রান্ত একটি ভিডিও ইতিমধ্যেই ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায় (Social Media)।

যেখানে দেখা গিয়েছে যে, ৭ বছরের এক স্কুল পড়ুয়া স্কুল এবং পড়াশোনা সামলেও করছে ডেলিভারি বয়ের (Delivery Boy) কাজ। আর এই দৃশ্য দেখেই অবাক হয়ে গিয়েছেন সকলে। যখন এই বয়সে তার মত সমবয়সীরা নিশ্চিন্তে খেলাধূলা ও পড়াশোনার মাধ্যমে দিন কাটাচ্ছে ঠিক সেই আবহে ওই ছাত্রের এহেন কাজ চমকে দিয়েছে নেটাগরিকদের। জানা গিয়েছে, স্কুল শেষ করে রাত ১১ টা পর্যন্ত Zomato-র ডেলিভারি বয় হিসেবে কাজ করে সে।

৭ বছরের ডেলিভারি বয়: রাহুল মিত্তাল নামের এক টুইটার ব্যবহারকারী এই পুরো ঘটনাটি সামনে এনেছেন। যেখানে, ওই বালকটি তার কাজ ও দৈনিক রুটিন সম্পর্কে জানায়। দিনের বেলায় স্কুলে যাওয়ার পর স্কুল শেষ হয়ে গেলে সাইকেলে চেপেই রাত ১১ টা পর্যন্ত ডেলিভারি বয়ের কাজ করে পরিবারকে বাঁচাচ্ছে ওই বালক। এই প্রসঙ্গে ওই ভিডিওটির ক্যাপশনে মিত্তাল লিখেছেন, “এই ৭ বছরের ছেলেটি তার বাবার কাজ করছে। কারণ তার বাবা একটি দুর্ঘটনার সম্মুখীন হন। ছেলেটি সকালে স্কুলে যায় এবং সন্ধ্যে ৬ টার পরে সে Zomato-র ডেলিভারি বয় হিসেবে কাজ করে। আমাদের তাকে অনুপ্রাণিত করতে হবে। এই ছেলেটিকে এবং তার বাবাকে তাদের পায়ে দাঁড়াতে সাহায্য করুন।”

ভিডিওটি টুইটারে শেয়ার করা হয়েছে: এদিকে, এই ভিডিওটি নেটমাধ্যমে আসা মাত্রই তা ঝড়ের গতিতে ভাইরাল হতে শুরু করছে। এছাড়াও, পাল্লা দিয়ে বাড়ছে দর্শকসংখ্যা এবং লাইকও। এখনও পর্যন্ত প্রায় ৩৯ হাজার জন ভিডিওটি দেখেছেন। পাশাপাশি, ওই ছেলেটির এহেন পরিশ্রম দেখে নিজেদের প্রতিক্রিয়া দেওয়ার পাশাপাশি তাকে শুভকামনা জানিয়েছেন সকলে।

এই প্রসঙ্গে একজন লিখেছেন, “আমি প্রার্থনা করি যাতে এই ছেলেটির বাবা দ্রুত সুস্থ হয়ে ওঠেন এবং সে পড়াশোনায় মনোযোগ দিতে পারে।” পাশাপাশি, আরেকজন লিখেছেন, “ভগবান তার বাবাকে দ্রুত সুস্থ করে দিন।” প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে, এই ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ার পরে Zomato-ও তাদের প্রতিক্রিয়া জানিয়ে রাহুলের কাছে ছেলেটির বাবার বিস্তারিত তথ্য তাদেরকে জানানোর জন্য অনুরোধ করেছে।

Related Articles

Back to top button