টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গভারতরাজনীতি

ত্রিপুরায় দিদির দূত গাড়িতে হামলা, সময় ঘনিয়ে এসেছে বলে বিজেপিকে হুঁশিয়ারি অভিষেকের

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ ত্রিপুরায় (tripura) নিজেদের মাটি শক্ত করতে বদ্ধ পরিকর তৃণমূল (tmc) বাহিনী। সেই মর্মে বাংলার মতো ত্রিপুরাতেও দিদির দূত কর্মসূচি চালু করেছে সবুজ শিবির। বাংলায় এই কর্মসূচীতে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় (Abhishek Banerjee) যোগ দিলেও, ত্রিপুরায় এই কর্মসূচীর অংশ হয়েছিলেন তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদ সুস্মিতা দেব (Sushmita Dev)।

অভিযোগ উঠেছে, ত্রিপুরার এই তৃণমূলের দূত কর্মসূচীতেই হামলা চালায় বিজেপির সদস্যরা। ভাঙচুর চালানো হয় এই কর্মসূচীর জন্য নিয়ে আসা গাড়িটিতেও। এই হামলায় তৃণমূলের অন্তত দশজন সহ আহত হন সুস্মিতা দেবও। আমতলি এলাকায় এই ঘটনা ঘটে বলে তৃণমূলের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে।

এই ঘটনার বিষয়ে সুস্মিতা দেব অভিযোগ করেন, ‘জনসংযোগ করার জন্য আমতলি বাজারে আসতেই তিন চারটি ছেলে আচমকাই আমার গাড়ির পেছনে বসে থাকা কর্মীর থেকে আমার ব্যাগটা ছিনিয়ে নেয় প্রথমে। তারপর মারধোর শুরু করে। আর এই ঘটনার সময় আমাদের সামনেই ছিল সিআরপিএফ, পুলিশ। তাঁদের মদত ছাড়া এমনট সম্ভব নয়’।

এই ঘটনার পরই আমতলি থানায় বিজেপির বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করে তৃণমূল বাহিনী। যদিও নিজেদের দিকে ওঠা এই অভিযোগকে অস্বীকার করেছে বিজেপি বাহিনী। এবিষয়ে বিজেপি-র মুখপাত্র অষ্মিতা বণিক বলেন, ‘১০০ কোটির টিকাকরণের উদযাপন ইস্যুতে সকাল থেকেই আজকে আমাদের কর্মী সমর্থকরা খুবই ব্যস্ত রয়েছেন, অন্য দলের উপর আক্রমণ চালানোর সময় কোথায়। ত্রিপুরায় তৃণমূল ছাড়াও অন্য অনেক বিরোধী দল রয়েছে, সকলেই নিজেদের মত করে কর্মসূচি চালাচ্ছে৷’।

এই ঘটনা প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবকে আক্রমণ করে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এক ট্যুইট করেন। সেখানে লেখেন, ‘বিপ্লব দেবের অধীনে বিজেপির গুন্ডারাজ চলছে। রাজনৈতিক বিরোধীদের উপর আক্রমণ নতুন রেকর্ড স্থাপন করছে! একজন মহিলা রাজ্যসভার সাংসদকে শারীরিকভাবে হেনস্থা করা, লজ্জাজনক ছাড়া কিছু নয়। সময় ঘনিয়ে এসেছে, ত্রিপুরার মানুষ এর ঠিক জবাব দেবে’।

Related Articles

Back to top button