‘দালালি মারতে এলে সব ফাঁস করে দেব’, রাজনীতির প্রসঙ্গ উঠতেই কার বিরুদ্ধে ফোঁস করে উঠলেন অঙ্কুশ?

বাংলা হান্ট ডেস্ক : অভিনয় ছেড়ে এবার প্রযোজনায় হাত দিচ্ছেন অঙ্কুশ হাজরা (Ankush Hazra)। নতুন ফিল্ডে এসেই বেশকিছু নয়া ছবির দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছেন অভিনেতা (Actor)। আর কয়েকদিন পরেই প্রেক্ষাগৃহে আসতে চলেছে অঙ্কুশ প্রযোজিত ছবি ‘কুরবান’ (Kurban)। তারপর থেকেই সকলের প্রশ্ন, টলিপাড়ার অন্যান্য অভিনেতা, অভিনেত্রীদের পথ ধরে অঙ্কুশও কি রাজনীতিতে নাম লেখাবেন?

কিছুদিন আগেই এই সময়ের সাথে এক সাক্ষাৎকারে অঙ্কুশের রাজনীতিতে যোগ দেওয়া নিয়ে প্রশ্ন করা হয়। এই সাক্ষাৎকারে অভিনেতা জানান, ‘আমার রাজনীতিতে আসা মুশকিল আছে। আসলে আসলে আমি যে দলে গিয়েই রাজনীতি করিনা কেন, আমি নিশ্চিত সেই দলই আমায় আগামী ৬ মাসের মধ্যে তাড়িয়ে দেবে। তার কারণ হল, আমি তো আমার মতো চলব। আমার উপর কাউকে দালালি মারতে দেব না।’

   

এখানেই থেমে না থেকে অভিনেতা আরও বলেন, ‘আর কোনও সময় যদি কোনও অন্যায় দেখতে পাই সেটা যদি আমার দলের লোকও হয়, আমি কিন্তু ফাঁস করে দেব। এটাতেই মুশকিল আছে। আমাকে আমার দলের লোকই তাড়িয়ে দেবে। হ্যাঁ, এজন্যই মুশকিন আছে, আমি ২ নম্বরি দেখলেই সব বলে দেব। তাই আমাকে নিয়ে টানাটানি না করাই ভালো।’ এছাড়াও তিনি যে রাজনীতিটাও বোঝেননা সেটাও জানালেন অভিনেতা।

আরও পড়ুন : কেবল স্বীকৃতিই নয়, জি বাংলার ‘আলোর কোলে’তে ধামাকা করতে আসছেন ‘অনুরাগের ছোঁয়া’ খ্যাত এই নায়িকা

এইদিন সাক্ষাৎকারে অভিনেতা আরও বলেন, ‘যেসমস্ত রাজনৈতিক দল মূলত আলোচনায় থাকে, সেক্ষেত্রে দুটো দলের লোকজনের সঙ্গেই আমার সম্পর্ক ভালো। আমি এদের সঙ্গেও কথা বলি ওদের সঙ্গেও কথা বলি, এদের পুজোতেও যাই, ওদের পুজোতেও যাই। আর এই স্পেসটা আমি উপভোগ করি। টাকার থেকেও স্বাধীনতাটা বেশি আনন্দের। আমি কোভিড, আমফানের সময়ও বিভিন্ন জায়গায় টাকা দিয়েছি, তবে তার জন্য আমায় কোনও ফাইলে সই করতে হয়নি। কাউকে বলতে হয়নি। এই স্বাধীনতাটাই আনন্দের। রাজনীতিটা আমার দ্বারা হবে না।’

আরও পড়ুন : ওলট পালট TRP তালিকা, সেরা পাঁচেও নেই ‘অনুরাগের ছোঁয়া’! দর্শক পেল নতুন বেঙ্গল টপার

96166289

অভিনেতার আরও সংযোজন, ‘আমি জানি না MP, MLAরা কত বেতন পান, তবে সবই তো ফ্রি। আমি আমার কেরিয়ারে এই পর্যায়ে এসে যে টাকা রোজগার করি তাতেই খুশি। আমি যখন ইন্ডাস্ট্রিতে এসেছিলাম, আমি মাসে ৩০ হাজার টাকা পেতাম, হাতে পেতাম ২৬-২৭ মতো, তাতেই কিন্তু আমি চালিয়েছি। আর খুব আনন্দ করেই কাটিয়েছি ওই টাকায় ৩-৪ বছর। আর তাই আমার কাছে, বেতন, আর এই যে MP, MLA হয়ে সব ফ্রি এটাই যথেষ্ট, চুরি, চামারির কথা এলে সব ফাঁস করে দেব।’

Moumita Mondal
Moumita Mondal

মৌমিতা মণ্ডল, গ্র্যাজুয়েশনের পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। বিগত ৩ বছরেরও বেশি সময় ধরে লেখালেখির সাথে যুক্ত। প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর