‘ED-র কাছে রাজ্যের দুই মন্ত্রীর নাম বলে দিয়েছেন অভিষেক!’, বোমা ফাটালেন অধীর রঞ্জন চৌধুরী

বাংলা হান্ট ডেস্ক : ফের বিস্ফোরক দাবি প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরীর (Adhir Ranjan Chowdhury)। তৃণমূলের (Trinamool Congress) জাতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় (Abhishek Banerjee) ইডির কাছে জেরায় পশ্চিমবঙ্গের (West Bengal) ২ গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রীর নাম বলে দিয়ে এসেছেন বলে দাবি কংগ্রেস নেতার। এরই সঙ্গে অধীরের দাবি কয়লা পাচার মামলায় কে মূল অভিযুক্ত তা ভালোভাবে জানে কেন্দ্রীয় সংস্থা। তারপরও তার বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।

একটি প্রদেশ কংগ্রেসের সাংবাদিক সম্মেলনে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হন অধীর রঞ্জন চৌধুরী। সেখান থেকে বিস্ফোরক দাবি করলেন কংগ্রেসের রাজ্য সভাপতি। তিনি বলেন, ‘ইডি সিবিআই বিজেপি সবাই সব জানে। কয়লা পাচারের নায়ককে সবাই চেনে। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ইডির জেরায় বাংলার দুই মন্ত্রীর নাম বলে দিয়ে এসেছেন। মিলিয়ে নেবেন আর কিছু দিনের মধ্যেই মলয় ঘটক ও ফিরহাদ হাকিম ডাকবে ইডি।’

প্রসঙ্গত, পঞ্চায়েত নির্বাচনকে (wb panchayat election 2023) কেন্দ্র করে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় অশান্তির ঘটনা ঘটেছে। এমনকী মৃত্যুও ঘটেছে অনেকের। নির্বাচনে এই হিংসার ঘটনায় সোমবার কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরী (Adhir Chowdhury)। এদিন নিজেই তিনি আদালতে এলেন।

adhir abhishek

সোমবার প্রধান বিচারপতি টিএস শিবজ্ঞানমের ডিভিশন বেঞ্চে মামলা করার অনুমতি চান অধীর। যেহেতু হাইকোর্টে আইনজীবীদের কর্মবিরতি চলছে, তাই কেউ যদি মামলা করতে চান তবে নিজেকে আদালতে উপস্থিত থাকতে হবে। সেই কারণেই অধীর মুর্শিদাবাদ থেকে চলে আসেন এদিন সাতসকালেই।

প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চে দাঁড়িয়ে কংগ্রেস সাংসদ বলেন, ‘আমি মুর্শিদাবাদ থেকে এসেছি। আমার জেলা সহ রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় অশান্তি হচ্ছে। বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যা। অনেকেই উপযুক্ত ন্যায্য বিচার পাচ্ছেন না। এমনকী মৃতদের পরিবারদের হাতেও দেহ তুলে দেওয়া হচ্ছে না।’

এরপরই প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘আমি মামলা করার অনুমতি দিচ্ছি। রাজ্যের অ্যাডভোকেট জেনারেলকে খবর দিন।’ দ্রুত শুনানির আর্জি জানিয়েছেন অধীর। হাইকোর্ট সূত্রে খবর, সোমবারই এই শুনানি হতে পারে।