আমডাঙার পর এবার গোসাবায় গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জের! পিটিয়ে খুন তৃণমূলের বুথ সভাপতিকে

বাংলা হান্ট ডেস্ক : জয়নগর, আমডাঙার পর এবার গোষ্ঠি কোন্দলের শিকার গোসাবা (Gosaba)। রাস্তাশ্রী প্রকল্পের কাজ দেখতে গিয়ে নির্মীয়মাণ রাস্তাকে কেন্দ্র করে শুরু হয় ঝামেলা। সেই ঝামেলার জেরে খুন হতে হল রাধানগর-তারানগর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার ৯৮ নম্বর বুথে তৃণমূলের (Trinamool) বুথ সভাপতিকে। মৃতের নাম মুছাকলি মোল্লা (৪২)। মৃতের ছেলের দাবি, তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জেরেই খুন করা হয়েছে তার বাবাকে।

আরও পড়ুন : ঘূর্ণিঝড় মিধিলির পর এবার মিউগাজম! পরিষ্কার আকাশ উত্তরে, কী খবর দক্ষিণবঙ্গের? IMD আপডেট

   

মর্মান্তিক এই ঘটনার পরপরই তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। তদন্ত সূত্রে খবর, পথশ্রী প্রকল্পে সরকারি রাস্তা নির্মাণকে কেন্দ্র করে দুই গোষ্ঠীর মধ্যে ঝামেলার সৃষ্টি হয়। আর তার জেরেই মৃত্যু হয় মুছাকলি মোল্লার। খবর চাউর হতেই চাঞ্চল্য ছড়ায় এলাকায়। জানা যাচ্ছে, ঝামেলার সময় লোহার রড দিয়ে আঘাত করা হয় মুছাকলি মোল্লাকে। বেধড়ক মারধরের জেরে প্রাণ হারান তিনি।

আরও পড়ুন : সিট থাকলেও নেই গদি! হাজার হাজার টাকার টিকিট কেটে বিপাকে বিমান যাত্রী, প্রশ্নের মুখে Indigo পরিষেবা

প্রসঙ্গত, পথশ্রী প্রকল্পে এক কিলোমিটার ঢালাই রাস্তা নির্মাণের কাজ চলছিল সুন্দরবন উপকূলীয় থানার পূর্ব রাধানগর গ্রামে। সেখানেই কাজের তদারকি করতে পৌঁছেছিলেন বুথ সভাপতি মুছাকলি মোল্লা। কাজের গুণমান নিয়ে তিনি প্রশ্ন তুললে ঠিকাদারদের কর্মীদের সাথে শুরু হয় বচসা। বচসা পৌঁছে যায় হাতাহাতিতে এবং লোহার রড দিয়ে পেটানো হয় তাকে।

আরও পড়ুন : এবার আর হবে না কারচুপি, রেশন কার্ডে পাবেন সঠিক সামগ্রী! নেওয়া হল বিরাট অ্যাকশন

স্থানীয়রা তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করে। ঘটনার পর থেকেই থমথমে হয়ে রয়েছে গোটা পরিবেশ। এদিকে পরিবারের তরফ থেকে খুনের অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে থানায়। এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করা না গেলেও গোটা এলাকায় রয়েছে পুলিশের নজরদারি। পাশাপাশি কেবল বচসার জেরেই খুন, নাকি এর পেছনে রয়েছে অন্য কোনো কারণ, সেটাও খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

mochakuli mollah

ওদিকে মৃত মুছাকলি মোল্লার স্ত্রী পুলিশকে জানিয়েছে, তৃণমূলের দলীয় বিভাজনের কারণেই নিজের স্বামীকে হারিয়েছেন তিনি। তবে গোটা ঘটনায় দলের শীর্ষ নেতৃত্বদের তরফে কোনো প্রতিক্রিয়া এখনও মেলেনি। তবে এই প্রথম নয় যেখানে তৃণমূলের গোষ্ঠী বিবাদের জেরে কেউ প্রাণ হারালেন। চলতি মাসের ১৩ নভেম্বর খুন হন জয়নগর থানার অন্তর্গত বামনগাছি গ্রাম পঞ্চায়েতের তৃণমূলের পঞ্চায়েত সদস্য সইফুদ্দিন লস্কর।

সম্পর্কিত খবর