সেরা তিনে নেই ‘জগদ্ধাত্রী’, বেঙ্গল টপার কে? রইল ওলট পালট করা TRP

   

বাংলা হান্ট ডেস্ক : সপ্তাহের বৃহস্পতিবার মানেই বাংলা সিরিয়ালের রিপোর্ট কার্ড আসার দিন। টিআরপি তালিকায় কোন মেগা কত নম্বর তুললো তা জানার জন্য মুখিয়ে থাকে সকলে। আর তাছাড়া চলতি সপ্তাহের টিআরপি নিয়ে শুরু থেকেই ছিল বাড়তি আকর্ষণ। এক তো চিন্তা ছিল ‘অনুরাগের ছোঁয়া’কে নিয়ে, তার উপর নতুন সদস্যদের কে কত নম্বর তুলতে পারলো সেটাও দর্শকদের জানার ছিল।

একথা সকলেই জানেন যে, শুরুর থেকেই প্রথম তিনে জায়গা করে নিত অঙ্কিতা মল্লিকের ‘জগদ্ধাত্রী’। তবে এবার সেরা তিন থেকে ছিটকে গেল এই মেগা। গত সপ্তাহে যেখানে সেরার মুকুট ছিনিয়ে নিয়েছিল সেখানে এই সপ্তাহে চার নম্বরে নেমে গিয়েছে জগদ্ধাত্রী (৮.০)। তবে খেল দেখিয়েছে স্টার জলসার তোমাদের রানী। ৪.৪ পয়েন্ট নিয়ে গৌরী এলোকে-হারিয়ে স্লট লিডার এই মেগা।

তবে সবচেয়ে বেশি অবাক করেছে ফুলকি। একটার পর একটা মোড় ঘোরানো এপিসোড দিয়ে দর্শকদের মনে গেঁথে বসেছে এই মেগা। জগদ্ধাত্রী, নিম ফুলের মধু-র মত পুরোনো সিরিয়ালদের হারিয়ে সোজা দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে নবাগত দিব্যানি মন্ডলের এই সিরিয়াল। এরপর তৃতীয় স্থানে উঠে এসেছে পর্ণা-সৃজনের ‘নিম ফুলের মধু’। সাম্প্রতিক সময়ে দত্ত বাড়িতে যেসব হাঙ্গামা চলছে তাতে টিআরপি তো বাড়ারই কথা ছিল।

আরও পড়ুন : বৈশাখীর যৌবনে…! ১৪ বছর পর রসালো প্রেমের কাহিনী শোনালেন শোভন

এদিকে আবারও একবার সেরার সেরা শিরোপা ছিনিয়ে নিয়ে গেছে সূর্য-দীপার ‘অনুরাগের ছোঁয়া’ (৮.৮)। এক ঝটকায় বেড়েছে সিরিয়ালের নম্বর। আর হবে নাই বা কেন, দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর অবশেষে চোখ খুলেছে সূর্যর। অবশেষে সে জানতে পেরেছে যে, সোনা রূপার বাবা আসলে সে নিজেই। আজকের এপিসোডেই দেখতেই পাবেন এই ধামাকাদার ট্র্যাক।

আরও পড়ুন : বাংলা সিরিয়ালে ডোমেস্টিক ভায়োলেন্স! ‘কার কাছে কই মনের কথা’র এপিসোড দেখে ক্ষুব্ধ দর্শক

বাংলা সিরিয়ালের সেরা ১০ এর টিআরপি তালিকা (TRP List of Top 10 Bengali Serial) :

প্রথম- অনুরাগের ছোঁয়া (৮.৮)

দ্বিতীয়- ফুলকি (৮.৩)

তৃতীয়- নিম ফুলের মধু (৮.২)

চতুর্থ- জগদ্ধাত্রী (৮.০)

পঞ্চম- রাঙা বউ (৭.৫)

ষষ্ঠ- সন্ধ্যাতারা/ কার কাছে কই মনের কথা/ হরগৌরী পাইস হোটেল (৬.৭)

সপ্তম- খেলনা বাড়ি (৬.৪)

অষ্টম- Love বিয়ে আজকাল (৬.১)

নবম- তুঁতে (৬.০)

দশম- বাংলা মিডিয়াম (৫.৫)

Moumita Mondal
Moumita Mondal

মৌমিতা মণ্ডল, গ্র্যাজুয়েশনের পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। বিগত ৩ বছরেরও বেশি সময় ধরে লেখালেখির সাথে যুক্ত। প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর