আবারও মুখ পুড়ল বামেদের! ইয়েচুরির তেলেঙ্গানা সহ ৪ রাজ্যে নোটার কাছেও হেরে ভূত সিপিএম

   

বাংলা হান্ট ডেস্ক : সিংহাসনের সেমিফাইনালে বাউন্ডারির পর বাউন্ডারি মারছে বিজেপি (Bhartiya Janta Party)। উত্তরের তিন রাজ্যই এখন ভাসছে মোদী (Narendra Modi) সুনামিতে। রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের (Loks Sabha Election) আগে বিজেপির এই জয় মোদী বিরোধী INDIA জোটের কাছে বিরাট বড় ধাক্কা। ৪ রাজ্যের মধ্যে কংগ্রেসের একমাত্র সান্ত্বনা এখন তেলঙ্গানা।

দেশজুড়ে এই মোদী ঢেউয়ের মাঝে বড়সড় ধাক্কা খেয়েছে ২০২৪ এ মোদীকে টক্কর দেওয়ার উদ্যোগ। সেই সাথে ভেসে গেছে জোটের অন্যতম উদ্যোক্তা বামেরাও। এমনকি ৩ রাজ্যে তো বামেদের চেয়ে নোটার উপরে বেশি ভরসা দেখিয়েছে মানুষ। আর একটিতে লড়াই চলেছে সমানে সমানে। ওদিকে রাজস্থান তো বটেই এবং উত্তরভারতের কংগ্রেসের একমাত্র ভরসার জায়গা ছত্তিশগড়কেও এবার ছিনিয়ে নিয়েছে BJP।

মধ্যপ্রদেশ রইল বিজেপির দখলেই। এমতাবস্থায় নির্বাচন কমিশনের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তথ্য বলছে, ছত্তিশগড়ে সিপিআই পেয়েছে ০.৩৯% ভোট এবং সিপিআইএম পেয়েছে ০.৪% ভোট। অর্থাৎ নকশাল কবলিত রাজ্যে বামেদের মোট ভোট ০.৪৫ শতাংশ। ওদিকে রাজ্যটিতে নোটায় ভোট পড়েছে প্রায় ১.২৬ শতাংশ।

আরও পড়ুন : ‘সমর্থনের জন্য ধন্যবাদ’, তেলেঙ্গানায় হেরেও জয়ের খুশি পদ্ম শিবিরে! ১ থেকে ৮-এ পৌঁছে বিশেষ বার্তা মোদীর

মধ্যপ্রদেশের কথা বললে সেখানে সিপিআই আর সিপিএম এর মিলিত ভোট প্রায় ০.০৪ শতাংশ। সেখানে নোটায় ভোট পড়েছে ০.৯৯ শতাংশ। তবে বামেরা তুলনামূলক ভালো ফল করেছে রাজস্থানে। এই রাজ্যটিতে সিপিআই এবং সিমিএম এর মিলিত ভোট ১.০০ শতাংশ। যেখানে নোটায় ভোট পড়েছে ০.৯৭ শতাংশ। সবথেকে মজার বিষয় এই যে, সিপিএমের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক সিতারাম ইয়চুরির (Sitaram Yechury) নিজের রাজ্য তেলেঙ্গানাতেও বেশি ভোট পেয়েছে নোটা। বামেদের ভোট ০.৬১ শতাংশ। যেখানে নোটার দখলে রয়েছে ০.৭২ শতাংশ ভোট।

national understanding isolated clandestine banerjee belief forced 23399ac0 8c6c 11e9 bf7d e03ff1c1f16f 1614484576038

যদিও গোবলয়ে বামেদের দুর্দশা আজকের নতুন নয়। তবে যেখানে আম আদমি পার্টি, তৃণমূলের মত আঞ্চলিক দল নিজেদের বিস্তার করার চেষ্টায় মরিয়া সেখানে সিপিএম তার উলটো পথে হাঁটছে। রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে আজও গণআন্দোলনেই আটকে রয়েছে বামেরা‌। ফলস্বরূপ রবিতেও উড়লোনা লাল আবির। পশ্চিমবঙ্গে তো শূন্যে ঠেকেছে বামেরা।

Moumita Mondal
Moumita Mondal

মৌমিতা মণ্ডল, গ্র্যাজুয়েশনের পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। বিগত ৩ বছরেরও বেশি সময় ধরে লেখালেখির সাথে যুক্ত। প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর