‘অনেক টাকা দিতে হবে, ভাগ..’, কাটমানি চাইছেন TMC কাউন্সিরের স্বামী? ভাইরাল অডিও ঘিরে তোলপাড়

   

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ বিরোধীদের কথায় তৃণমূল (Trinamool Congress) ও কাটমানি নাকি ওতপ্রোতভাবে জড়িত। এবার সেই দাবীকেই জোড়ালো করল বালুরঘাটের (Balurghat) এক ঘটনা। শাসকদলে কাঠমানি রাজ আজও রন্ধে রন্ধে বিরাজমান! ঠিক এমনই অভিযোগে সোশ্যাল মিডিয়ার প্রকাশ্যে এল এক ঘটনা। প্রসঙ্গত সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া এক অডিও বার্তার ক্লিপিং নিয়েই এর সূত্রপাত। যদিও সেই অডিওর (Viral Audio) সত্যতা যাচাই করেনি টিম বাংলাহান্ট।

কী সেই অডিও ক্লিপ? ভাইরাল হওয়া সেই অডিও ক্লিপিং এ দুই ব্যক্তির ফোনালাপ কথপোকথন শোনা যাচ্ছে। যাতে একজন বিশাল পরিমান অর্থ দাবি করছেন। আর অন্যজনকে চাপে  পড়ে ওই অর্থ কমানোর জন্য কাকুতি মিনতি করতে শোনা যাচ্ছে। তাতেও বরফ না গললে এই টাকা দিতে গিয়ে যে তাকে নিজের সমস্ত জমি বাড়ি সব বেচতে হবে সে কথাও বলতে শোনা যাচ্ছে ওপর ব্যক্তিকে। ফোনে যিনি টাকা চাইছেন তাকে বলতে শোনা যাচ্ছে, যে এই অর্থের ভাগ দলের অন্দরে এমনকি পুরসভাকেও দিতে হয়ে থাকে। তার জন্য এত পরিমাণ টাকা চাওয়া হচ্ছে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে ছড়িয়ে পড়েছে, সেই ক্লিপিং শুনিয়ে বিজেপির অভিযোগ এই অডিও ক্লিপিং এ ফোনালাপের দুই প্রান্তে যে দুই ব্যাক্তির কথপোকথন শোনা যাচ্ছে, তাদের মধ্যে একজন বালুরঘাট পুরসভার ৪ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূলের কাউন্সিলর নিতা নন্দীর স্বামীর গলা এবং অন্য প্রান্তে যার গলা শোনা যাচ্ছে, তিনি একজন স্থানীয় ঠিকাদার। কাটমানি চাইছেন TMC কাউন্সিরের স্বামী।

আরও পড়ুন: পূর্বের সব রেকর্ড ভেঙে কিছুক্ষণেই ৯ জেলা কাঁপাবে বৃষ্টি! আবহাওয়ার বড় আপডেট

যদিও কাউন্সিলর যে পুরসভার সেই বালুরঘাট পুরসভার চেয়ারম্যান অশোক মিত্রকে এ বিষয়ে প্রশ্ন করলে তিনি সংবাদ মাধ্যমকে জানান, তিনি নিজেও এই ভাইরাল অডিও শুনেছেন। তবে এর সত্যতা আছে বলে তিনি মনে করেন না। তার মতে ভাইরাল ওডিও তে দুজনের গলা শোনা গেলেও তারা কে তার নাম শোনা যাচ্ছে না।

tmc flag

তিনি আরও বলেন, বিজেপির কাজ মিথ্যে অভিযোগ করে সংবাদ মাধ্যমের প্রচারের আলোয় থাকা। তাকে যখন প্রশ্ন করা অডিও ক্লিপিং এ পুরসভাকেও কাটমানি দেওয়ার কথা বলতে শোনা যাচ্ছে। তার উত্তরে চেয়ারম্যান জানান বললাম তো সব অভিযোগ মিথ্যে, পুরসভা নাগরিক উন্নয়নের কাজ করছে আর বিজেপি মিথ্যে আর কুৎস্যা তে ব্যস্ত রয়েছে। তাদের কাজ শুধু এই করা। তবে তিনি আশ্বস দিয়ে বলেন পুরসভা এই ক্লিপিং খতিয়ে দেখে ব্যবস্থ্যা নেবে এবং এই মিথ্যে অডিওর বিরুদ্ধে প্রয়োজনে আইনের আশ্রয় নেবে পুরসভা বলে তিনি হুঁশিয়ারি দিয়েছেন।

আরও পড়ুন: ‘জানেন একজন বন্দিকে রাখলে সরকারের কত খরচ হয়?’, ভরা এজলাসে CBI-কে যা বললেন বিচারক

তবে পুরসভার চেয়ারম্যান যাই দাবি করুন না কেন, নিয়োগ দুর্নীতি থেকে তৃণমূলের এই ১২ বছরের জামানায় জনগন যে ভাবে একের পর এক দুর্নীতি খোলস পেয়াজের খোসার মত খুলতে দেখেছে, তাই এই অডিও ক্লিপিং কে ফ্যুৎকারে করে জেলাবাসী অসত্য বলে উড়িয়ে দিতে পারছে না , এখন দেখার শেষ পর্যন্ত ঘটনার মোর কোন দিকে বাক নেয়। অন্যদিকে, যে কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে অভিযোগ তার সাথে এই ঘটনা সামনে আসার পর যোগাযোগ করা যাচ্ছে না।

Sharmi Dhar
Sharmi Dhar

শর্মি ধর, বাংলা হান্ট এর রাজনৈতিক কনটেন্ট রাইটার। উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতায় স্নাতকোত্তর। বিগত ৩ বছর ধরে সাংবাদিকতা পেশার সঙ্গে যুক্ত ।

সম্পর্কিত খবর