টাইমলাইনবিনোদন

রবীন্দ্রনাথ ‘সো কল্ড বিশ্বকবি’, ‘ব্রিটিশদের চাটুকারিতা করতেন’! মাত্রা ছাড়ালেন নোবেল

বাংলাহান্ট ডেস্ক: বিতর্কের অপর নাম নোবেল (Noble)। বাংলাদেশের এই সঙ্গীতশিল্পী কথায় কথায় বিতর্ক উসকে দেন। প্রবাদপ্রতিম ব‍্যক্তিত্বদের অপমান করা তাঁর অন‍্যতম প্রিয় কাজ। আপন দেশের মানুষ হোক বা পড়শি দেশের, নোবেলের আক্রমণ থেকে কেউ ছাড় পান না। এর আগে বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর (Rabindranath Tagore) সম্পর্কে বিষ্ফোরক মন্তব‍্য করেছিলেন তিনি। আর এবারে তাঁকে বয়কটের ডাক দিলেন নোবেল।

মইনুল আহসান নোবেল, বাংলাদেশি সঙ্গীতশিল্পী জনপ্রিয়তার চূড়ায় ওঠেন এপার বা‌ংলার মিউজিক রিয়েলিটি শো সারেগামাপা দিয়ে। তারপর দেশে ফিরতেই আসল রূপ দেখাতে শুরু করেন তিনি। একের পর এক গুরুতর অভিযোগ উঠতে শুরু করে নোবেলের বিরুদ্ধে। এমনকি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে পর্যন্ত আক্রমণ করেছিলেন নোবেল।


সম্প্রতি সোশ‍্যাল মিডিয়ায় তিনি লেখেন, ‘রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর এবং তাঁর রাবীন্দ্রিক সাহিত্যচর্চা অবিলম্বে বাংলাদেশ থেকে বয়কট করা হউক। আমাদের জাতীয় কবি নজরুল! বিদ্রোহী কবি; যখন আমাদের অধিকার আদায়ে সক্রিয় ছিলেন। রোজ রোজ ব্রিটিশদের কাছে কারাবন্দী হতেন, কনডেম সেলে টর্চারের শিকার হচ্ছিলেন, তখন বিরিটিশদের চাটুকারিতা করে সো-কল্ড বিশ্বকবি বিন্দাস আমাদের বাপ-দাদার রক্ত চুষে খাচ্ছিলো।’

নোবেলের বিষ্ফোরক মন্তব‍্যে ঝড় উঠেছে সোশ‍্যাল মিডিয়ায়। কেউ কেউ বাংলাদেশি শিল্পীকে সমর্থন করেছেন। তবে অনেকেই পালটা সমালোচনা করে তুলোধনা করেছেন নোবেলকে। একজন লিখেছেন, ‘সেইতো সারেগামাপা য় গিয়ে রবীন্দ্রনাথ সঙ্গীত গেয়ে আসলেন। ভালোই হিপোক্রিট’। আরেকজন কটাক্ষ করেছেন, ‘তোমারে বিশ্বকবি উপাধি দেওয়া হবে । এখন তুমি পাবনা যেতে পার।’


কিছুদিন আগেই রবীন্দ্রনাথকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব‍্য করে ট্রোলড হয়েছিলেন নোবেল। লিখেছিলেন, ‘রবীন্দ্রনাথ-নজরুল তো আর নবী কিংবা দেবতা না যে তাদের গান প্যারোডি আকারে গাওয়া যাবে না! যে রবীন্দ্রনাথ এদেশের কবিদের মূল্যায়ন করে যাই নাই তারে নিয়ে যে এদেশে চর্চা হয় এটাই রবীন্দ্রনাথের জন্য বেশি। তাছাড়া বাংলাদেশের সাহিত্যে যেহেতু রবীন্দ্রনাথের অবদান নিতান্তই কম, নেই বললেই চলে, সেক্ষেত্রে তার গান এদেশের কেউ যদি প্যারোডি আকারে গায় সেটা রবীন্দ্রনাথের জন্যই মঙ্গলজনক।’

Related Articles