AXIS ব্যাঙ্কে অ্যাকাউন্ট থাকলে হয়ে যান সাবধান! বড় পদক্ষেপ নিল RBI, চিন্তায় গ্রাহকরা

   

বাংলা হান্ট ডেস্ক: এবার একটি বড় খবর সামনে এসেছে। প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী জানা গিয়েছে যে, RBI (Reserve Bank Of India) প্রাইভেট সেক্টরের অন্যতম বৃহৎ ব্যাঙ্ক অ্যাক্সিস ব্যাঙ্কের (Axis Bank) বিরুদ্ধে বড় পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। মূলত, ওই ব্যাঙ্ককে লক্ষ লক্ষ টাকার জরিমানা আরোপ করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক। জানা গিয়েছে গ্রাহকদের প্রতি অবহেলার কারণে RBI এই জরিমানা করেছে। পাশাপাশি, কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক আরও জানিয়েছে যে, ওই ব্যাঙ্কটি RBI-এর নির্দেশ মানেনি।

জরিমানার পরিমাণ: অ্যাক্সিস ব্যাঙ্কের বিরুদ্ধে RBI ৯০.৯২ লক্ষ টাকার জরিমানা আরোপ করেছে। পাশাপাশি, এই জরিমানা আরোপের পরে RBI একটি বিবৃতিও জারি করেছে। যেটিতে বলা হয়েছে যে KYC নির্দেশিকা সহ ২০১৬ সালের রিস্ক ম্যানেজমেন্ট এবং ঋণের নিয়মগুলি অনুসরণ করা হয়নি। যার জেরে ওই ব্যাঙ্ককে জরিমানা করা হয়েছে।

Be careful if you have an account with Axis Bank

গ্রাহকদের রেকর্ড রক্ষণাবেক্ষণে অবহেলা: এর পাশাপাশি গ্রাহকদের পরিচয় ও ঠিকানা সংক্রান্ত নথিপত্র নিরাপদ রাখার বিষয়েও গাফিলতি ছিল ব্যাঙ্কের। এমন পরিস্থিতিতে, গ্রাহকরা ব্যাঙ্কের বিরুদ্ধে ক্রমাগত তাঁদের ফোন করার অভিযোগও জানিয়েছেন। এছাড়াও, ঋণগ্রহীতাদের পাশাপাশি রিকভারি এজেন্টদের বিরুদ্ধেও একাধিক অভিযোগ পাওয়া গেছে।

আরও পড়ুন: লৌহ কপাট বিতর্কে এবার আসরে কবীর সুমন! চাঁচাছোলা মন্তব্য করে কড়া বার্তা রহমানকে

ব্যাঙ্কের কাছে গ্রাহকদের টেপ রেকর্ডিং নেই: উল্লেখ্য যে, তদন্তের সময়ে অ্যাক্সিস ব্যাঙ্ক থেকে এজেন্টদের গ্রাহকদেরকে করা কলগুলির রেকর্ডিং চাওয়া হয়েছিল। সেটিও ব্যাঙ্ক দিতে পারেনি। তদন্তের পর ব্যাঙ্ক দেখেছে অ্যাক্সিস ব্যাঙ্ক অনেক নিয়ম মানেনি। তাই RBI ব্যাঙ্কটিকে মোটা অঙ্কের জরিমানা করেছে।

আরও পড়ুন: আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে বড় ধাক্কা! ভারতীয় সেনাদের সরিয়ে দিচ্ছে এই দেশের সরকার

গ্রাহকরা ক্ষতিগ্রস্ত হবেন না: এই প্রসঙ্গে জানিয়ে রাখি যে, অ্যাক্সিস ব্যাঙ্কের ওপর আরোপিত এই জরিমানা গ্রাহকদেরকে প্রভাবিত করবে না। কারণ, নিয়ম লঙ্ঘনের জন্য শুধু ব্যাঙ্ককেই জরিমানা দিতে হবে। তবে, এই জরিমানার প্রভাব অ্যাক্সিস ব্যাঙ্কের স্টকগুলিতে স্পষ্টভাবে দৃশ্যমান ছিল। শুক্রবারও এই শেয়ারের দরপতন ঘটেছে।

Sayak Panda
Sayak Panda

সায়ক পন্ডা, মেদিনীপুর কলেজ (অটোনমাস) থেকে মাস কমিউনিকেশন এবং সাংবাদিকতার পোস্ট গ্র্যাজুয়েট কোর্স করার পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। ২ বছরেরও বেশি সময় ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর