আর নয় অপেক্ষা! নমো ভারত রেলের প্রসঙ্গে এল বড় আপডেট, কবে থেকে শুরু পরিষেবা?

   

বাংলা হান্ট ডেস্ক: বর্তমান সময়ে দেশের (India) বিভিন্ন প্রান্তে পরিবহণ ব্যবস্থার উন্নতির লক্ষ্যে একাধিক গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে। পাশাপাশি, তৈরি হচ্ছে পরিবহণের নিত্যনতুন মাধ্যম। এছাড়াও, সম্প্রসারণ হচ্ছে রেলপথের (Indian Railways)। সেই রেশ বজায় রেখেই এবার একটি বড় আপডেট সামনে এসেছে। এই প্রসঙ্গে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী জানা গিয়েছে যে, নমো ভারত রেলের সাথে নয়ডা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের সংযোগের কাজ আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে শুরু হতে পারে। পাশাপাশি, রাজ্য সরকার কেন্দ্রের কাছে প্রকল্প নির্মাণের প্রস্তাব পাঠাবে বলেও জানা গিয়েছে।

এই প্রসঙ্গে জানিয়ে রাখি যে, প্রকল্পটির পরিপ্রেক্ষিতে রাজ্য ও কেন্দ্রীয় সরকার প্রথম ধাপের খরচের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে এবং রাজ্য সরকার দ্বিতীয় ধাপের খরচের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে। ২০৩১ সালের মধ্যে, নমো ভারত রেল গাজিয়াবাদের সিদ্ধার্থ বিহারের মধ্যে গ্রেটার নয়ডা ওয়েস্ট এবং নয়ডা বিমানবন্দর হয়ে পরিষেবা শুরু করতে পারে।

Big update about Namo Bharat Rail.

রাজ্য ও কেন্দ্র খরচ ভাগাভাগি করবে: প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে, নমো ভারতের প্রথম ধাপে গাজিয়াবাদের সিদ্ধার্থ বিহার থেকে কাসনা পর্যন্ত ৩৭ কিলোমিটার দীর্ঘ নমো ভারত করিডোর তৈরি করা হবে। যেটির খরচ ধরা হয়েছে ১৩,০৫৪ কোটি টাকা। কেন্দ্রীয় সরকার এবং রাজ্য সরকারের মধ্যে এই খরচের ৫০ শতাংশ ভাগ করার একটি প্রস্তাব শীঘ্রই রাজ্য সরকারের তরফে কেন্দ্রের কাছে পাঠানো হবে।

আরও পড়ুন: ভারতের সতর্কতা মেনেই চিনের প্ল্যানে জল ঢালছে নেপাল! ৭ বছরের চেষ্টাতেও সফল হল না বেজিং

রাজ্য সরকার দ্বিতীয় ধাপের নির্মাণ ব্যয়ের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে: এদিকে, এই প্রকল্পের দ্বিতীয় পর্যায়টি কাসনা থেকে নয়ডা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর পর্যন্ত ৩৫ কিলোমিটার দীর্ঘ হবে। এর ব্যয় ধরা হয়েছে ৬৯৮ কোটি টাকা। রাজ্য সরকার এটি বহন করবে কিনা তা ঠিক করবে। নয়ডা, গ্রেটার নয়ডা এবং যমুনা কর্তৃপক্ষকে সামিলের মাধ্যমে NIAL (Noida International Airport Limited) এই খরচ বহন করতে পারে।

আরও পড়ুন: পছন্দ বিলাসবহুল গাড়ি! দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত পড়াশোনা করেই ২৫,০০০ কোটির কোম্পানি খাড়া করলেন দীনেশ

বিমানবন্দর কমপ্লেক্সের টার্মিনালে পৌঁছবে নমো ভারত রেল: জানা গিয়েছে যে, বিমানবন্দর কমপ্লেক্সের টার্মিনাল বিল্ডিং পর্যন্ত নমো ভারত রেলের সংযোগ থাকবে। যেটির ট্র্যাক ক্যাম্পাসের মাটির নিচে থাকবে। এটি হবে ১২০ মিটার উঁচু এবং ৯০ মিটার ভূগর্ভস্থ। এটির নির্মাণে অতিরিক্ত ৬০০ কোটি টাকা খরচ হবে। বিমানবন্দরে যাতায়াতকারী যাত্রীরা টার্মিনাল বিল্ডিংয়ের নমো ভারত আন্ডারগ্রাউন্ড স্টেশনে প্রবেশ করতে পারবেন। এদিকে, প্রকল্পের ফলে সামগ্রিকভাবে গ্রেটার নয়ডার অভ্যন্তরীণ পরিবহণ সমস্যার সমাধান হবে এবং সড়কে যানবাহণের চাপও কমবে। এই প্রসঙ্গে, যমুনা কর্তৃপক্ষের সিইও ডঃ অরুণবীর সিং জানিয়েছেন যে, নমো ভারত রেল প্রকল্পের নির্মাণের খরচ রাজ্য সরকার বহন করবে। ডিপিআর এবং প্রকল্প ব্যয়ের তথ্য রাজ্য সরকারের কাছে পাঠানো হয়েছে। এমতাবস্থায়, চলতি বছরের শেষ নাগাদ প্রকল্পের কাজ শুরু হবে বলে অনুমান করা হচ্ছে।

Sayak Panda
Sayak Panda

সায়ক পন্ডা, মেদিনীপুর কলেজ (অটোনমাস) থেকে মাস কমিউনিকেশন এবং সাংবাদিকতার পোস্ট গ্র্যাজুয়েট কোর্স করার পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। ২ বছরেরও বেশি সময় ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর