‘TMC-র বিরুদ্ধে আমিই লড়েছি’! মন্তব্য দিলীপের, শুভেন্দুর জবাব, ‘ঝগড়া লাগানোর চেষ্টা করছেন’!

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ উনিশের লোকসভা নির্বাচনে ‘গেরুয়া ঝড়ে’র সাক্ষী ছিল রাজ্যবাসী। বাংলার বুকে উল্কার গতিতে বিজেপির এই উত্থানের কারিগর হিসেবে অনেকেই দিলীপ ঘোষের (Dilip Ghosh) নাম নেন। মাঠে-ময়দানে থেমে দলের সংগঠন তৈরি করেছেন তিনি, মত ওয়াকিবহাল মহলের। এখন যদিও বঙ্গ বিজেপিতে (BJP) ‘সুকান্ত জমানা’ চলছে। এই আবহে দিলীপ সম্প্রতি বলেন, ‘তৃণমূলের বিরুদ্ধে তো আমিই লড়েছি’। এবার এই প্রসঙ্গে প্রশ্ন করা হতেই চমকে দেওয়া উত্তর দিলেন শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari)।

মেদিনীপুরের বিদায়ী সাংসদ দিলীপকে (BJP Candidate Dilip Ghosh) এবার বর্ধমান দুর্গাপুর কেন্দ্র থেকে টিকিট দিয়েছে গেরুয়া শিবির। মঙ্গলবার পূর্ব বর্ধমানের সাতগাছিয়ায় জনসংযোগ করেন তিনি। সেখানেই দলীয় কর্মী-সমর্থকদের উদ্দেশে তাঁকে বলতে শোনা যায়, ‘তৃণমূলের বিরুদ্ধে তো আমিই লড়েছি। পশ্চিমবঙ্গে আর কে লড়েছে! সিপিএম-কংগ্রেস ছিল, এখন সেটিং। বলছে চিরকাল সেটিং করায় দোকান উঠে গেল’।

বিজেপি প্রবীণ রাজনীতিকের এই মন্তব্য প্রসঙ্গে গতকাল প্রশ্ন করা হয় রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীকে। খানিক বিরক্তির সুরে তিনি বলেন, ‘উনি আমাদের দলের সিনিয়র লিডার। ওনার কথার জবাব আমায় ওই ভাবে কেন দিতে হবে? আপনারা ঝগড়া লাগানোর চেষ্টা করছেন। এসব হবে না। আমরা সবাই মোদী বাহিনীর সেনা’।

আরও পড়ুনঃ ‘বুঝতেই পারছেন, কারা…’, মেডিক্যাল পরীক্ষা করিয়ে বেরোনোর সময় চিৎকার করে ‘বেফাঁস’ শাহজাহান

শুভেন্দু এই প্রসঙ্গে সরাসরি কোনও মন্তব্য করতে না চাইলেও বাঁকুড়ার বিজেপি প্রার্থী সুভাষ সরকার কার্যত মেনে নেন দিলীপ সত্যি কথা বলছেন! সুভাষ বলেন, ‘দিলীপবাবুর বলা ‘আমি’র অর্থ হল বিজেপি। বিজেপি লড়াই করেছে, নিশ্চয়ই উনি সত্যি কথা বলেছেন’।

suvendu adhikari dilip ghosh

প্রসঙ্গত, লোকসভা নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার পর থেকে একাধিকবার ‘বেফাঁস’ মন্তব্য করেছেন দিলীপ ঘোষ। কখনও রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিশানা করেছেন, কখনও আবার জলপাইগুড়ির প্রাকৃতিক দুর্যোগ নিয়ে মন্তব্য করে সংবাদের শিরোনামে উঠে এসেছেন। ‘তৃণমূলের বিরুদ্ধে আমিই লড়েছি’, বিজেপি নেতার এই মন্তব্য ঘিরেও বেশ চর্চা হয়েছিল। তবে এই বিষয়ে কোনও প্রতিক্রিয়া দিয়ে বিষয়টিকে আর বাড়াননি শুভেন্দু অধিকারী।

Sneha Paul
Sneha Paul

স্নেহা পাল, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তরের পর সাংবাদিকতা শুরু। বিগত প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর