ভোটের আগেই মাথায় বাজ! দেবাংশুর বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ BJP-র! প্রার্থীপদ খারিজ হবে না তো?

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ চব্বিশের লোকসভা নির্বাচনে একাধিক নতুন মুখকে টিকিট দিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। তাঁদের মধ্যে অন্যতম হলেন যুব নেতা দেবাংশু ভট্টাচার্য (Debangshu Bhattacharya)। তমলুকের মতো হাইভোল্টেজ কেন্দ্র থেকে তাঁকে দাঁড় করিয়েছে জোড়াফুল শিবির। তবে এবার তাঁর বিরুদ্ধেই নির্বাচন কমিশনের কাছে নালিশ জানাল বিজেপি (BJP)।

দিন কয়েক আগে বসিরহাটের পদ্ম-প্রার্থী রেখা পাত্রর স্বাস্থ্য সাথী কার্ডের তথ্য সমাজমাধ্যমে শেয়ার করেছিলেন দেবাংশু। বিজেপি প্রার্থীও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নের স্বাদ পেয়েছেন, এহেন মন্তব্য করেন তিনি। এদিকে তৃণমূল (TMC) প্রার্থীর এই পোস্টের সৌজন্যে ফাঁস হয়ে যায় রেখার ব্যাঙ্ক ডিটেলস সহ বেশ কিছু ব্যক্তিগত তথ্য। তা নিয়ে সরব হয় বিজেপি শিবির। এবার এই নিয়ে নির্বাচন কমিশনের (Election Commission of India) কাছে চিঠি দিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অরুণ সিং ও হরদীপ পুরী।

কমিশনকে দেওয়া সেই চিঠির মাধ্যমে বলা হয়েছে, একজন ব্যক্তির অত্যন্ত ব্যক্তিগত তথ্য ফাঁস করা হয়েছে। প্রকল্পের কারণে রাজ্য সরকারের কাছে এই তথ্য দিয়েছিলেন রেখা। শুধুমাত্র রাজ্য সরকারের কাছে সেই তথ্য থাকা সম্ভব। তবে পশ্চিমবঙ্গের তৃণমূল সরকার সেই তথ্য রাজনৈতিক কারণে ফাঁস করেছে বলে অভিযোগ করেন তাঁরা।

আরও পড়ুনঃ ‘মানুষ ভিখিরি নয়’, ভোটের আগে ‘জানোয়ার’ বলে আক্রমণ! লক্ষ্মীর ভাণ্ডার নিয়ে বোমা ফাটালেন অভিজিৎ!

বিজেপির আশঙ্কা, রাজ্যের সকল উপভোক্তার তথ্য এভাবেই তৃণমূলের কাছে চলে গিয়েছে। গেরুয়া শিবিরের অভিযোগ, এর মাধ্যমে ডিজিটাল পার্সোনাল ডেটা প্রোটেকশন আইন লঙ্ঘিত হয়েছে। যদি ডেটা প্রোটেকশন বোর্ড চায় তাহলে এর জন্য জরিমানাও করতে পারে।

এখানেই না থেমে বিজেপি বলে, কারোর ব্যক্তিগত তথ্য এভাবে ফাঁস করা যায় না। কীভাবে সেই তথ্য ফাঁস হয়েছে তা রাজ্যের মুখ্য সচিবের কাছ থেকে জানতে চাওয়া হোক। পাশাপাশি উচ্চপর্যায়ের কমিটি বানিয়ে বিষয়টি তদন্তের দাবিও জানানো হয়েছে। সেই সঙ্গেই তৃণমূল কংগ্রেস এবং দেবাংশুর এক্স হ্যান্ডেল সাসপেন্ড করার কথাও বলেছে বিজেপি শিবির।

debangshu bhattacharya tmc

প্রসঙ্গত, দেবাংশু সমাজমাধ্যমে স্বাস্থ্য সাথী কার্ডের তথ্য ফাঁস করার পর জাতীয় মহিলা কমিশনে অভিযোগ জানিয়েছিলেন বসিরহাটের বিজেপি প্রার্থী রেখা। সেই সঙ্গেই তফশিলি জাতি ও উপজাতি কমিশনেরও দ্বারস্থ হয়েছিলেন তিনি। এবার সোজা নির্বাচন কমিশনের কাছে চিঠি লিখল বিজেপি।

Sneha Paul
Sneha Paul

স্নেহা পাল, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তরের পর সাংবাদিকতা শুরু। বিগত প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর