মোদীর গীতাপাঠের কর্মসূচীর জন্য পিছিয়ে যাবে TET? পরীক্ষা বাতিলের দাবি নিয়ে হাইকোর্টে BJP

   

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ টেটের দিন পরিবর্তনের আর্জি জানিয়ে এবার আদালতে বিজেপি (BJP)। সম্প্রতি টেটের (Primary TET Exam) দিন পরিবর্তন করেছে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ। আগামী ১০ ডিসেম্বর বেলা ১২টা থেকে টেট পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল। তবে হঠাৎই বিজ্ঞপ্তি দিয়ে পর্ষদ (West Bengal Board Of Primary Education) জানায়, ২৪ ডিসেম্বর নেওয়া হবে টেট। এই তারিখ নিয়েই শুরু হয় শোরগোল। কারণ কলকাতায় প্রধানমন্ত্রীর গীতাপাঠ কর্মসূচির দিনই টেট হচ্ছে। এই ইস্যুতেই এবার হাইকোর্টে (Calcutta High Court) রাজ্য।

প্রাথমিকে নিয়োগের যোগ্যতা নির্ণায়ক এই পরীক্ষার দিন পরিবর্তন চেয়ে বার কলকাতা হাই কোর্টের প্রধান বিচারপতি টিএস শিবজ্ঞানম এবং বিচারপতি হিরণ্ময় ভট্টাচার্যের ডিভিশন বেঞ্চের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হল। যদিও প্রধান বিচারপতি জানিয়ে দিয়েছেন, পরীক্ষার দিন পরিবর্তন সম্ভব নয়। মামলা দায়ের হলে বিবেচনা করে দেখা যাবে।

প্রসঙ্গত, এই মামলাটি করতে চেয়ে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছেন মেদিনীপুরের বিজেপি সাংসদ দিলীপ ঘোষ। নেতার আইনজীবীর বক্তব্য, ওই একই দিনে কলকাতায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর পূর্বনির্ধারিত কর্মসূচী রয়েছে। আগে টেটের দিন রাখা হয়েছিল ১০ ডিসেম্বর। গত সপ্তাহে হঠাৎ প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানায় অনিবার্য পরিস্থিতির কারণে পরীক্ষার দিন পরিবর্তন করে ২৪ ডিসেম্বর করা হয়েছে। ঠিক কোন কারণে টেটের দিন বদলে প্রধানমন্ত্রীর কর্মসূচীর দিন রাখা হল সেই নিয়ে কিছু বলা হয়নি।

tet

দিন পরিবর্তন বিষয়ে পর্ষদ সভাপতি গৌতম পাল জানিয়েছেন, ‘‘পরীক্ষা একেবারে নির্বিঘ্নে হয় সেই জন্য আমরা এ বার বেশ কিছু নতুন পদক্ষেপ করছি। তার জন্য আরও কিছুটা সময় প্রয়োজন। তাই পর্ষদ পরীক্ষার দিন পিছনোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে ।’’

আরও পড়ুন: মেয়ের প্রাণভিক্ষা চেয়ে মন্ত্রীর পা ধরেছিলেন বাবা-মা! সব বিফলে…মৃত্যু হল বছর তেরোর সুপ্রিয়ার

একই দিনে দুই মেগা ইভেন্ট। তাই টেট পরীক্ষা সুষ্ঠ ভাবে পরিচালনা করা যায় তা নিশ্চিত করতে গত বুধবার নবান্নে বৈঠকে পরীক্ষার নিরাপত্তার প্রসঙ্গ উঠে আসে। সূত্রের খবর, এই বিষয়ে প্রাথমিক শিক্ষা দফতরের এক আধিকারিকের কথায়, পূর্বে নেট পরীক্ষাও ব্রিগেড সভার মতো একই দিনে হয়েছিল। যদিও তখন কোনও সমস্যা হয়নি।

কলকাতার ব্রিগেড প্যারেড গ্রাউন্ডে বসতে চলেছে গীতাপাঠের আসর। আর সেদিনই টেট। ফলে পরীক্ষার দিন বিভিন্ন দিক থেকে পরীক্ষার্থীদের আসতে সমস্যা হতে পারে। কারণ টেট দিতে ট্রেনে বাসে উপচে পড়বে পরীক্ষার্থীর ভিড়। অন্যদিকে গীতাপাঠারে আসরেও দূর দূরান্ত থেকে বিজেপির কর্মী সমর্থকরা আসবেন। ফলে যাতায়াতের বিরাট সমস্যা হতে পারে। সে কথা মাথায় রেখে পরীক্ষার দিনগুলোতে যাতে সব জেলায় অতিরিক্ত বাস ও অন্যান্য যানবাহনের ব্যবস্থা করা হয়ে সেই নিয়ে জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ও জেলা পরিবহন কর্মকর্তাদের নির্দেশও দেওয়া হয়েছে। এরই মাঝে পরীক্ষার দিন নিয়ে আদালতে বিজেপি।

Sharmi Dhar
Sharmi Dhar

শর্মি ধর, বাংলা হান্ট এর রাজনৈতিক কনটেন্ট রাইটার। উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতায় স্নাতকোত্তর। বিগত ৩ বছর ধরে সাংবাদিকতা পেশার সঙ্গে যুক্ত ।

সম্পর্কিত খবর