বিজেপিকে সমর্থন করায় চড়াও পরিবার! করুণ পরিণতি মুসলিম মহিলার

   

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ বিধানসভা নির্বাচনে তিন রাজ্যে জয়লাভ করেছে বিজেপি (Bharatiya Janata Party)। মোদী ম্যাজিকে মুগ্ধ হল গেরুয়া শিবির। আনন্দের জোয়ারে গা ভাসাচ্ছেন সমর্থকেরা। তবে সেই একইরকম কাজ করতে গিয়েই লাঞ্ছনার শিকার হলেন এক মুসলিম মহিলা। বিজেপির জয়ের সমর্থন করতে গিয়ে পরিবারের কাছে মারের হাত থেকে রক্ষা পেলেননা তিনি। চলুন দেখেনিন।

মধ্যপ্রদেশ সহ আরও অন্য রাজ্যের নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার একদিন পর ৪ ডিসেম্বর, ৩০ বছর বয়সী মহিলাকে লাঞ্চিত করা হয়েছিল। জানা গিয়েছে, মহিলার নাম সামিনা। তিনি মধ্যপ্রদেশের সেহোর জেলায় ভারতীয় জনতা পার্টিকে ভোট দেওয়ার কারণে তার পরিবারের লোকের হাতে মার খান।

এই বিষয়ে সামিনা কী বলেছেন?

অগ্নিপরীক্ষার বর্ণনা করে, সামিনা বলেছেন, ‘বিজেপি জয়ের উল্লাসের জেরে আমার এই অবস্থা। সেদিন বিজেপির জয়ে খুব খুশি হয়ে উঠেছিলাম। বাকি বিজেপি সমর্থকদের মতো আমিও আনন্দ করতে শুরু করেছিলাম। যা আমার দেওর জাভেদ সহ্য করতে পারেনি। প্রথমদিকে সে গালিগালাজ করতে শুরু করলেও কিছুক্ষণের মধ্যেই তার সহ্যের মাত্রা ছাড়িয়ে যায়। আমি তাকে জিজ্ঞেস করি কেন সে এরকম আচরণ করছে? এরপর সে আর মুখে নয় সোজা লাঠি দিয়ে আমাকে মারতে শুরু করে। আর এই ঝগড়ার সময় আমার স্বামীও তার পাশে ছিলেন’।

samina

পুলিশ সূত্রে খবর, সামিনা তার দেওর জাভেদ খানের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছেন। একইসঙ্গে সামিনা বিচারের জন্য জেলাশাসক প্রবীণ সিং আধায়চের সামনে দ্বারস্থ হন। পুলিশ আরও বলেন, পুলিশ অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করেছেন। আর জানিয়েছেন অভিযুক্তদের উপযুক্ত শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে। মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী, সামিনা জানিয়েছেন, জেলাশাসক এই ঘটনার পূর্ণ তদন্ত করবেন এবং অভিযুক্তকে উপযুক্ত শাস্তির ব্যবস্থা করবেন।

সম্পর্কিত খবর