বিপুল টাকা নয়ছয়! চালু করতে দেওয়া হয়নি কেন্দ্রীয় প্রকল্প, লোকসভায় নয়া কৌশলে প্রচার BJP-র

   

বাংলা হান্ট ডেস্ক : হাতে মাত্র কয়েকটা দিন। বছর ঘুরলেই ২০২৪ লোকসভা নির্বাচন (Loksabha Election)। ইতিমধ্যেই যেন ভোটের দামামা বাজিয়ে দিয়েছে শাসক জোট এনডিএ (NDA) ও বিরোধী জোট ইন্ডিয়া (INDIA)। ক্ষমতা পাওয়ার সাথে ক্ষমতা ধরে রাখার হাড্ডাহাড্ডি লড়াই। ভোটের রণকৌশল সাজাতে ব্যস্ত সকলে। এই আবহেই আসন্ন লোকসভায় প্রত্যেক অ–বিজেপি রাজ্যে নতুন করে একটি বিষয় প্রচার চালাবে বিজেপি।

এই প্রচারে গেরুয়া শিবিরে মূল হাতিয়ার হবে রাজ্য সরকার যে সমস্ত কেন্দ্র সরকারি প্রকল্প চালু না করে সাধারণ মানুষকে বঞ্চিত রেখেছে সেই ইস্যু লাইমলাইটে আনা। তবে অন্য অনেক অ–বিজেপি শাসিত রাজ্যে এই কৌশল কাজে লাগিয়ে বিজেপির ঝুলিতে আসন এলেও বাংলার ক্ষেত্রে কি এই চাল খাটবে?

প্রসঙ্গত, বাংলার পাওনা, বকেয়া ইস্যুতে কেন্দ্র-রাজ্য সংঘাত সর্বদাই দেখা যায়। একাধিক দিক থেকে বঞ্চিত বাংলা, প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার টাকা দেওয়া হচ্ছে না, বন্ধ রয়েছে একশো দিনের কাজের টাকা। স্বাস্থ্য খাতেও টাকা দিচ্ছেনা কেন্দ্র। এই রকমই বহু বিষয় নিয়ে সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রীর দরবারে গিয়েছিলেন মমতা। রাজ্যের ঝুলি ভর্তি অভিযোগ শুনে তা মেটানোরও আশ্বাস দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। ওদিকে পাল্টা রাজ্য সরকার রাজনৈতিক কারণে কেন্দ্রীয় প্রকল্প চালু করতে দেয়নি, এই কারণ দেখিয়ে আসরে নামছে বিজেপি।

এই যেমন, জানা যাচ্ছে ছত্তিশগড়ের ইস্যু তুলে ধরা হবে এবার। সম্প্রতি বিধানসভা নির্বাচনে ছত্তিশগড়ে ক্ষমতায় এসেছে বিজেপি। সে রাজ্যে এতদিন প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা চালু করেননি প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী প্রাক্তন ভূপেশ বাঘেল। ঠিক এই কারণেই কেন্দ্রীয় সুবিধা থেকে বঞ্চিত হয়ে বিজেপির দিকে মুখ তুলে চেয়েছে সে রাজ্যের মানুষ। এই বিষয়গুলিই অ–বিজেপি শাসিত বিভিন্ন রাজ্যে বিজেপিকে আসন দিতে সহায়ক হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন: DA অসন্তোষের মাঝেই আরও একটি বড় ঘোষণা, আনন্দে লাফাচ্ছেন রাজ্য সরকারের সরকারি কর্মীরা

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি তিন রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনে ঝড় তুলেছে বিজেপি। লোকসভার আগেই রীতিমতো ছক্কা মেরেছে গেরুয়া শিবির। সেই জয়ের পর বিরোধীদের উদ্দেশ্য করে খোদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেছিলেন, ‘শুধরে যাও’‌। নিজেদের চালচলনে পরিবর্তন না আনলে দেশের মানুষ এভাবেই শিক্ষা দেবে। বাধা না দিয়ে বিরোধী দলগুলিকে কেন্দ্রীয় সরকারের প্রকল্পগুলি চালু করতে এগিয়ে আসুন। তিন রাজ্যের জয় এই বার্তাই দিচ্ছে।’

bjp flag

জানা যাচ্ছে এবার কেন্দ্রীয় প্রকল্পগুলি গ্রহণ না করা, কেন্দ্রীয় প্রকল্পের টাকা নয়ছয় ইত্যাদি বিষয়গুলিকে সামনে ঢাল হিসেবে রেখে প্রচার চালাবে বিজেপি। তবে বাংলার বিষয় বিপরীত। এখানে ১০০ দিনের কাজ করার পরেও টাকা পাননি মানুষজন। বারংবার উঠেছে বঞ্চনার অভিযোগ। তাই বাংলায় বিজেপি পাল্টা কোন চাল রেডি করে সেটাই দেখার।

Sharmi Dhar
Sharmi Dhar

শর্মি ধর, বাংলা হান্ট এর রাজনৈতিক কনটেন্ট রাইটার। উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতায় স্নাতকোত্তর। বিগত ৩ বছর ধরে সাংবাদিকতা পেশার সঙ্গে যুক্ত ।

সম্পর্কিত খবর