২২ বিলিয়ন থেকে ৩ বিলিয়ন ডলারের কমে নামল ভ্যালুয়েশন! করুণ অবস্থা Byju’s-এর

বাংলা হান্ট ডেস্ক: এবার বড়সড় ধাক্কার সম্মুখীন হল Byju’s। এই প্রসঙ্গে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী জানা গিয়েছে যে, টেক ইনভেস্টর Prosus এই এডটেক স্টার্টআপের ভ্যালুয়েশনকে কমিয়ে ৩ বিলিয়ন ডলারের কম করেছে। যা গত বছরের সর্বোচ্চ ভ্যালুয়েশন ২২ বিলিয়ন ডলারের থেকে ৮৬ শতাংশ কম। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে, করোনার (Corona) মতো ভয়াবহ মহামারী চলাকালীন দ্রুত সম্প্রসারণের পরেও, Byju’s ক্যাশ ফ্লো-র সমস্যার সাথে লড়াই করছে এবং ঋণদাতাদের সাথে ১.২ বিলিয়ন ডলারের ঋণের বিরোধে জড়িয়ে পড়েছে।

ক্রমশ কমছে ভ্যালুয়েশন:

   

গত এক বছরে, Prosus এবং Blackrock সহ শেয়ারহোল্ডাররা মার্চ মাসে Byju’s-এর ভ্যালুয়েশন ক্রমশ কমিয়ে ১১ বিলিয়ন ডলার, মে মাসে ৮ বিলিয়ন ডলার এবং জুন মাসে ৫ বিলিয়ন ডলার করেছে। এদিকে, এই সর্বশেষ আপডেটটি Prosus-এর আর্নিং কলের সময়ে অন্তর্বর্তীকালীন সিইও এরভিন তু দ্বারা প্রকাশ করা হয়েছিল।

Byju's valuation fell from 22 billion dollar to less than 3 billion dollar

এদিকে, এই বিষয়টি স্টার্টআপটির ২,২৫০ কোটি টাকার লোকসানের ঘোষণা করার মাত্র কয়েকদিন পরেই সামনে আসে। উল্লেখ্য যে, Byju’s তার ২০২১-২২ অর্থবর্ষের আর্থিক ফলাফল দাখিল করতে প্রায় ১ বছর বিলম্ব করেছে। যার ফলে অডিটর ডেলয়েট এবং তিনজন বোর্ড সদস্যকে দায়িত্ব ত্যাগ করতে হয়েছে। এদিকে, সংস্থার চিফ ফাইন্যান্সিয়াল অফিসার এবং চিফ টেকনোলজি অফিসারও গত সপ্তাহে পদত্যাগ করেছেন।

আরও পড়ুন: ভুয়ো আইনজীবী হয়ে জিতেছেন ২৬ টি মামলা! ধরা পড়তে তিরস্কারের বদলে প্রশংসা পাচ্ছেন অভিযুক্ত

আর এই ফলাফলগুলি নির্দেশ করে যে, Byju’s যে কিনা একসময় ভারতের উদীয়মান স্টার্টআপ অর্থনীতির পোস্টার চাইল্ড ছিল সেটি করোনা পরবর্তী পরিস্থিতিতে টিকে থাকার জন্য লড়াই করছে। এদিকে, ১.২ বিলিয়ন ডলার ঋণের চুক্তি লঙ্ঘন করার পরে ঋণদাতারা এই বছর Byju’s-এর বিরুদ্ধে মামলাও করে।

আরও পড়ুন: পাত্তা পাবে না টাটা, হুন্ডাই! আকর্ষণীয় দামে রাজকীয় কামব্যাক করতে চলেছে Mahindra-র এই গাড়ি

জানিয়ে রাখি যে, করোনা মহামারী চলাকালীন স্কুল এবং বিশ্ববিদ্যালয়গুলি বন্ধ হওয়ার পরে এই সংস্থাটি বিশাল ব্যয় বহন করেছিল। পাশাপাশি, সংস্থাটি শুধুমাত্র ভারতেই নয়, বরং আমেরিকাতেও বেশ কয়েকটি এডটেক স্টার্টআপ অধিগ্রহণ করে। কারণ তারা দ্রুত প্রসারিত হওয়ার চেষ্টা করেছিল। কিন্তু স্বাভাবিক ক্লাস পুনরায় শুরু হওয়ার পর থেকে এই বৃদ্ধির গতি কমে গেছে। এছাড়াও, গত কয়েক মাস ধরে চলা আইনি বিরোধের কারণে কোম্পানির চ্যালেঞ্জ আরও বৃদ্ধি পায়।