লোকসভা নির্বাচনে মোদীর হাতে এল ‘ব্রহ্মাস্ত্র’, বঙ্গ সফরের আগেই CAA বিধির ঘোষণা!

বাংলা হান্ট ডেস্ক : সিটিজেনশিপ অ্যামেন্ডমেন্ট অ্যাক্ট (Citizenship Amendment Act) বা সিএএ (CAA) নিয়ে বিরাট খবর। কিছুদিন আগেই শোনা গেছিল আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের (Lok Sabha Election) আগেই লাগু হয়ে যাবে বিতর্কিত আইন সিএএ। সেই মত ঘোষণাও করেছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ্ (Amit Shah)। আর এখন খবর, নাগরিকত্ব আইন কার্যকর হওয়া এখন কেবল সময়ের অপেক্ষা।

   

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে সিএএ বিল পাশ হয়। তবে এখনও পর্যন্ত এই আইন লাগু হওয়ার কোনও সম্ভাবনা দেখা যায়নি। যা নিয়ে বিরোধীরাও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে (Narendra Modi) কটাক্ষ করতে ছাড়েনি কেন্দ্রকে। বিরোধীদের অভিযোগ, আইন পাশ করিয়েও তা লাগু না করার পেছনেও রয়েছে রাজনৈতিক খেলা। তবে এবার সমস্ত জল্পনার অবসান ঘটিয়ে সিএএ লাগু হওয়ার দিনক্ষণ প্রকাশ্যে আনল কেন্দ্র।

এখানে বলে রাখা ভালো, নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের আওতায় পকিস্তান, আফগানিস্তান, বাংলাদেশ, মায়ানমার, শ্রীলঙ্কার হিন্দু, বৌদ্ধ, জৈন, পার্সি, খ্রিষ্টান, শিখরা যারা ধর্মীয় কারণে ক্রমাগত নির্যাতনের শিকার হয়ে চলেছে তাদেরকে ভারতের নাগরিকত্ব দেওয়া হবে। তবে এইসব দেশের সংখ্যাগরিষ্ঠ অর্থাৎ মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষজন এই আইনের বাইরে।

আরও পড়ুন : ‘যারা জিতিয়েছে তারাই ছুঁড়ে ফেলে দেবে’, সন্দেশখালির জের? আশঙ্কা খোদ মমতার! তৃণমূলে থরহরিকম্প

যদিও বিরোধীরা প্রথম থেকেই এই আইনের বিরোধিতা করে আসছে। সংসদ ভবনে দাঁড়িয়ে একাধিকবার সিএএ-র বিরুদ্ধে আওয়াজও তোলেন তারা। যদিও বিরোধীদের সমস্ত দাবিকে খারিজ করে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ঘোষণা করেছিলেন সিএএ লাগু হবেই। আর এবার শোনা যাচ্ছে, লোকসভা নির্বাচনের আগেই আগামী মাসেই কার্যকর হয়ে যাবে সিএএ বিধি।

আরও পড়ুন : খরচ ২৫ কোটি, একদম ভোল বদলে যাচ্ছে বালুরঘাট স্টেশনের! উত্তরবঙ্গকে বড় উপহার রেলের

caa

এককথায় বলা যায় যে, লোকসভা নির্বাচনের আগে এটাই হতে চলেছে মোদীর ‘ব্রহ্মাস্ত্র’। জাতীয় মিডিয়ার গুঞ্জন সত্যি করে যদি মার্চ মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহেই নির্বাচনের নির্ঘণ্ট ঘোষণা হয় তাহলে এই সিএএ বিধি হবে বিজেপির অন্যতম বড় হাতিয়ার। যার সরাসরি প্রভাব পড়বে বাংলার ভোটবাক্সে। কারণ বাংলার নেত্রী প্রথম থেকেই এই আইনের বিরোধিতা করে এসেছেন।

Moumita Mondal
Moumita Mondal

মৌমিতা মণ্ডল, গ্র্যাজুয়েশনের পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। বিগত ৩ বছরেরও বেশি সময় ধরে লেখালেখির সাথে যুক্ত। প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর