SSC মামলার মাঝেই বিপাকে পর্ষদ! শিক্ষকদের নিয়ে হাইকোর্টের নির্দেশে ঘুম উড়ল সকলের

   

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ ২০২২ থেকে শুরু, এখনও নিয়োগ দুর্নীতি নিয়ে সরগরম রাজ্য। কিছুদিন আগেই দুর্নীতির জেরে SSC ২০১৬ সালের গোটা প্যানেল বাতিল করে দেয় কলকাতা হাইকোর্ট (Calcutta High Court)। যদিও সুপ্রিম কোর্টের স্থগিতাদেশের জেরে সকলের চাকরি আপাতত বহাল রয়েছে। শীর্ষ আদালতে চলছে মামলা। আর এসবের মাঝেই রাজ্যের স্কুল-শিক্ষকদের (School Teachers) প্রাইভেট টিউশন (Private tuition) নিয়ে বিরাট সম্যসা। বহুদিন ধরেই এই সমস্যা সামনে এসেছে। আর এবার এই ইস্যুতেই কড়া ব্যবস্থা নিল কলকাতা হাইকোর্ট।

রাজ্যের স্কুল-শিক্ষকদের প্রাইভেট টিউশন নিয়ে আপত্তির ভিত্তিতে তা নিয়ন্ত্রণে হাইকোর্টের নির্দেশ জারি ছিল। স্কুল শিক্ষকরা যে প্রাইভেট টিউশন করাতে পারবেন না আগেই এই নির্দেশ ছিল কলকাতা হাইকোর্টের। তবে অভিযোগ উচ্চ আদালতের নির্দেশের অবস্থা সেই রকমই রয়েছে। এবার নিয়েই রাজ্য মধ্যশিক্ষা পর্ষদ ও জেলা স্কুল পরিদর্শককে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য ডেডলাইন বেঁধে দিল হাইকোর্ট।

আদালতের নির্দেশ থাকা সত্ত্বেও টিউশন করিয়ে যাচ্ছেন সরকারি স্কুলের শিক্ষকরা। সম্প্রতি এ নিয়ে কলকাতায় হাইকোর্টে একটি আদালত অবমাননার মামলা দায়ের করে গৃহ শিক্ষকদের সংগঠন গৃহ শিক্ষক কল্যাণ সমিতি। সেই মামলার ভিত্তিতে কলকাতা হাইকোর্ট আগামী ৮ সপ্তাহের মধ্যে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ এবং জেলা স্কুল পরিদর্শককে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য কড়া নির্দেশ দিয়েছে।

এদিন মামলাকারীদের আইনজীবী আদালতে জানায়, ২০২৩-এর ১ মে মামলার শুনানির পরে হাইকোর্ট নির্দেশ দিয়েছিল, ওই শিক্ষকদের টিউশন বন্ধের জন্য মধ্যশিক্ষা পর্ষদকে তিন মাসের মধ্যে পদক্ষেপ নিতে হবে। এরপর স্কুলের শিক্ষকরা প্রাইভেট টিউশন করছেন না বলে পর্ষদ বিভিন্ন স্কুলের প্রধান শিক্ষকদের কাছ থেকে মুচলেকা চায়। তবে গৃহ শিক্ষকদের সংগঠনের অভিযোগ, শিক্ষকরা মুচলেকা দেওয়ার পরেও টিউশন করছেন। এই নিয়ে গত ডিসেম্বর মাসে আদালত অবমাননা মামলা করেন সমিতি।

teachers 5

আরও পড়ুন: ফের ৪ শতাংশ বাড়ছে DA, কবে থেকে? সরকারি কর্মীদের জন্য বড় আপডেট

এদিন হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি টিএস শিবজ্ঞানম ও বিচারপতি হিরণ্ময় ভট্টাচার্যের ডিভিশন বেঞ্চে এই মামলা উঠলে আদালত জানায়, ‘যে কয়েকটি জেলার স্কুল পরিদশর্করা রিপোর্ট দিয়েছেন, তাতে কোথাও প্রাইভেট টিউশন করেন, এমন কোনও স্কুল শিক্ষকের ব্যাপারে কোনও তথ্য নেই।’ মধ্যশিক্ষা পষর্দও মেনে নেয় গত এক বছরে নয়টি জেলার স্কুল পরিদর্শক এই ব্যাপারে কাজ করলেও তারা সরকারি শিক্ষকদের প্রাইভেট টিউশন সম্পর্কে কোনও তথ্য পাননি।

সব পক্ষের বক্তব্য শুনে কমিশনার অফ স্কুল এডুকেশনকে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ এবং জেলা স্কুল পরিদর্শকদের নিয়ে এই সমস্যা সমাধানে রূপরেখা তৈরির নির্দেশ দিয়েছে কলকাতা হাইকোর্ট। সেই পরিকল্পনা তৈরি করে আগামী আট সপ্তাহের মধ্যে বিষয়টি বাস্তবায়িত করার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ।

Sharmi Dhar
Sharmi Dhar

শর্মি ধর, বাংলা হান্ট এর রাজনৈতিক কনটেন্ট রাইটার। উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতায় স্নাতকোত্তর। বিগত ৩ বছর ধরে সাংবাদিকতা পেশার সঙ্গে যুক্ত ।

সম্পর্কিত খবর