হাইকোর্টে বড়সড় স্বস্তি অনুব্রতর! বোলপুর পুরসভা অনুদান মামলায় CBI তদন্তের দাবি খারিজ আদালতের

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ সাম্প্রতিক সময় কোনোমতেই ভালো যাচ্ছে না তৃণমূল কংগ্রেস (Trinamool Congress) নেতা অনুব্রত মণ্ডলের (Anubrata Mondal)। গরু পাচার মামলায় সম্প্রতি সিবিআইয়ের (CBI) হাতে গ্রেফতার হন অনুব্রত। একইসঙ্গে অন্যান্য একাধিক মামলার তাঁর বিরুদ্ধে তদন্ত করা হয়ে চলেছে আর এর মাঝেই এবার খানিকটা স্বস্তি পেলেন বীরভূম জেলা সভাপতি। বোলপুর পুরসভার বিল্ডিং প্ল্যান পাশের জন্য অনুদান প্রসঙ্গে যে মামলা চলছিল, সে প্রসঙ্গে সিবিআই তদন্তের দাবি খারিজ করল কলকাতা হাইকোর্ট (Calcutta High Court)।

   

সম্প্রতি, বোলপুর পুরসভার চেয়ারপার্সন পর্ণা ঘোষ এবং সুদীপ্ত ঘোষের বিরুদ্ধে দুর্নীতি করে টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে সর্বত্র। দুজনই পুরসভার নামে বিল দিয়ে টাকা আত্মসাৎ করত বলে অভিযোগ ওঠে। একইসঙ্গে, এই দুর্নীতি মামলায় যুক্ত হয় অনুব্রত মণ্ডলের নাম। পরবর্তীতে কলকাতা হাইকোর্টে একটি মামলা পর্যন্ত দায়ের করা হয়।

এদিন এই সংক্রান্ত মামলাটি ওঠে হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি প্রকাশ শ্রীবাস্তব এবং রাজশ্রী ভরদ্বাজের ডিভিশন বেঞ্চে। যদিও পুরসভার তরফ থেকে দাবি করা হয় যে, এক্ষেত্রে কোন রকম দুর্নীতি হয়নি। অনুদান সম্পর্কিত সকল তথ্য রয়েছে পুরসভার কাছে।

আদালত সূত্রে খবর, বর্তমানে মামলাকারীদের কাছে উপযুক্ত নথি নেই আর সেই কারণেই আদালতের তরফ থেকে জানানো হয় যে, এই মুহূর্তে অনুদান সংক্রান্ত দুর্নীতি মামলায় কোনরকম হস্তক্ষেপ করবে না তারা। পাশাপাশি সিবিআই তদন্তের দাবিও খারিজ করে দেন প্রকাশ শ্রীবাস্তব।

all india trinamool congress,cbi,calcutta high court,anubrata mondal,bolpur municipal case

তবে এক্ষেত্রে পুরসভার কাছ থেকে প্রয়োজনীয় নথি চাওয়ার মাধ্যমে পরবর্তী সময় হাইকোর্টের দ্বারস্থ হতে পারেন মামলাকারী। উল্লেখ্য, সাম্প্রতিক সময়ে গরু পাচার মামলায় সিবিআইয়ের হাতে গ্রেফতার হয়েছেন অনুব্রত মণ্ডল। একাধিকবার জামিনের আবেদন করলেও এক প্রকার খালি হাতে ফিরতে হয় তাঁকে। এই মুহূর্তে জেলে হেফাজতে রয়েছেন অনুব্রত। তবে তার মাঝেই আদালতের রায়ের দ্বারা তৃণমূল কংগ্রেস নেতা এবং বোলপুর পুরসভা, উভয় পক্ষই স্বস্তি পেল বলে মত বিশেষজ্ঞদের।

সম্পর্কিত খবর