গঙ্গাসাগর মেলায় নয়া নিয়ম! VIP দের জন্যও কড়া বার্তা মমতার

বাংলা হান্ট ডেস্ক : নতুন বছরের জানুয়ারি মাসের শুরুতেই গঙ্গাসাগর মেলা (Gangasagar Fair)। এই মেলার প্রস্তুতি খতিয়ে দেখার জন্য মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banarjee) বুধবার নবান্নে বৈঠকে বসেন। এই বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, ‘গঙ্গাসাগর মেলাকে এবার থেকে প্লাস্টিক ফ্রি করতে হবে’। এই মেলায় প্রতি বছরই ভিড় দেখতে পাওয়া যায়। তাই ঘুরতে আসা মানুষদের যাতে কোনও অসুবিধা না হয় তার জন্য বেশি করে ট্রেন এবং বাস চালানো হবে। তাছাড়া লঞ্চের ব্যবস্থাও থাকছে এবং মানুষের সুবিধার্থে নিরাপত্তার ব্যবস্থাও করা হয়েছে।

   

এই গঙ্গাসাগর মেলা চলবে ৯দিনের জন্য। ৮ই জানুয়ারি থেকে ১৭ই জানুয়ারি পর্যন্ত এই মেলা স্থায়ী হবে। এই মেলার প্রস্তুতির জন্য মুখ্যমন্ত্রীর বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন, ১৫জন মন্ত্রী, ১৮জন আধিকারিক এবং দক্ষিণ ২৪ পরগনার জেলা প্রশাসনও। এছাড়া মুখ্যমন্ত্রী এই প্রস্তুতি নিজে দেখতে আসবেন বলে জানিয়েছেন।

মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, এখানে আসা প্রতিটি ভক্তের জন্য থাকবে ৫ লক্ষ করে বীমা। এছাড়া যারা এই মেলায় কাজের সূত্রে থাকবেন তাদের জন্যও এই বীমা লাঘব করা হয়েছে। মানুষের নিরাপত্তার জন্য ১১৫০টি সিসিটিভি ক্যামেরা (CCTV Camera), ২০টি ড্রোন (Drone), প্রতিটি গাড়িতে জিপিএস লাগানো থাকবে এবং স্পেশালি ইসরোর (ISRO) উপগ্রহ মারফত নজরদারির ব্যবস্থাও থাকবে।

gangasagar

সূত্রে খবর, যারা মেলায় আসবেন তাদের যাতে সমস্যা না হয়, তার জন্য মুখ্যমন্ত্রী বিশেষ কিছু সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। সেকারণে তিনি ২২৫০ টি বেসরকারি বাস এবং ২৫০টি সরকারি বাসের নির্দেশ দেন। তাছাড়া ৬টি জাহাজ ব্যবহার করা হবে বলে তিনি জানিয়েছেন। তিনি ভিআইপিদের পাইলট কার না নিয়ে আসার নির্দেশ দিয়েছেন। কারণ মানুষ ভিআইপিকে সামনে পেয়ে ভিড় আরও জমিয়ে দেয়, যার কারণে অনেকেই সমস্যায় পড়ে যান।

মিডিয়ার রিপোর্ট অনুযায়ী, মুখ্যমন্ত্রী মেলাতে রান্না করা নিয়ে নিষেধ করেছেন। কারণ মেলায় ৫০টি দমকলের ইঞ্জিন রাখা থাকবে। এছাড়া যাতে কোনও রকম ঘটনা না ঘটে তার জন্য মেলায় পর্যাপ্ত পুলিশ প্রশাসন উপস্থিত থাকবে। এর মধ্যে ২,৪০০ জন সিভিল ডিফেন্সের কর্মী এবং প্রচুর সিভিক ভলেন্টিয়ারও থাকবে।