হোয়্যাটসঅ্যাপ মেসেজ থেকেই…! মুখ্যমন্ত্রীর নাম করে ‘খেলা খেলল’ কে? কড়া পদক্ষেপ নিলেন মমতা

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ মুখ্যমন্ত্রীর নাম করে মেসেজ, অথচ তিনিই জানেন না! সম্পূর্ণ ঘটনায় বেশ রেগে যান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। খেলাটা কে খেলল? দায়িত্ব নিতে হবে। স্পষ্ট জানান তিনি। সাসপেন্ড করা হয় তথ্য সংস্কৃতি আধিকারিক তথা DICO স্বরূপ বিশ্বাসকে। এখন প্রশ্ন হল, মুখ্যমন্ত্রী নাম করে কী মেসেজ পাঠানো হয়েছিল? কেনই বা এত রেগে গেলেন তিনি?

   

মঙ্গলবার রাতে শিলিগুড়ির মহকুমা তথ্য সংস্কৃতি দফতরের তরফ থেকে জয়ন্ত মল্লিক হোয়্যাটসঅ্যাপ গ্রুপে একটি মেসেজ (WhatsApp Message) পাঠান। এই মেসেজে বলা হয়, সকাল ৯:৩০টায় সাংবাদিক বৈঠক করবেন মুখ্যমন্ত্রী। নিমেষের মধ্যে সাংবাদিক মহলে ছড়িয়ে পড়ে এই খবর। সোমবার দেশজুড়ে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন লাগু হয়েছে। মঙ্গলবার এই নিয়ে সরব হয়েছিলেন মমতা। এই আবহে তাঁর একটি সাংবাদিক বৈঠকের (Press Conference) গুরুত্ব আলাদা করে বলে দিতে হয় না।

মেসেজ পেয়ে যথাসময়ে যথাস্থানে পৌঁছে যান সাংবাদিকরা। মুখ্যমন্ত্রী (CM Mamata Banerjee) নাম করে এই সাংবাদিক বৈঠক ডাকা হলেও তিনি এই বিষয়ে কিছু জানতেন না। একটি হোয়্যাটসঅ্যাপ মেসেজ থেকে ছড়ানো এই বিভ্রান্তির কথা পরে জানতে পারেন মমতা। খোঁজ নেওয়ার পর জানা যায়, জেলা তথ্য সংস্কৃতি আধিকারিক স্বরূপ বিশ্বাসের নির্দেশ দিয়েছিলেন জয়ন্ত মল্লিককে। সম্পূর্ণ বিষয়ে ভীষণ রেগে যান মুখ্যমন্ত্রী।

আরও পড়ুনঃ BJP-তে যোগ দিতে দিল্লি-যাত্রা মমতার ভাইয়ের? বাবুনের সঙ্গে সমস্ত সম্পর্ক ছিন্ন করলেন মুখ্যমন্ত্রী

সাংবাদিক বৈঠক ডেকে বিভ্রান্তি ছড়ানোর জন্য ক্ষমা চেয়ে নেওয়ার পাশাপাশি স্বরূপ বিশ্বাসকে সাসপেন্ড করার কথা জানান মমতা। উত্তরকন্যার সাংবাদিক সম্মেলন থেকে বলেন, ‘সবাইকে মিসলিড করা হয়েছে। সকলকে হ্যারাস করা হয়েছে। আপনারা জানেন, আমি কথা দিয়ে কথা রাখি। আমাদের জীবনের সবচেয়ে দামি হচ্ছে কথা। আজকের অনুষ্ঠানটাই ছোট। বেশি গ্যাদারিং করতে চাইনি’।

mamata banerjee press conference

এখানে না থেমে মুখ্যমন্ত্রী প্রশ্ন করেন, তাঁকে না জানিয়ে এই মেসেজ কে দেবে? তিনি বলেন, ‘আমায় না জানিয়ে এই মেসেজটা কে দেবে? এসব বললে তো হবে না। তাঁকে দায়িত্ব নিতেই হবে। সে কি কারোর কাছ থেকে কনফার্ম করেছে? আমি তো নিজেই জানতাম না। অথচ আমি অপরাধী হয়ে গেলাম’। মমতা স্পষ্ট জানান, সরকারি অফিসারদের কিছু কর্তব্য-দায়িত্ব মেনে চলতে হয়। পাশাপাশি এও বলেন, তাঁর কারোর ওপর কোনও ব্যক্তিগত রাগ নেই। তবে কেউ কোনও ‘ভুল খেলা খেললে’ তাঁর পিছনে কোনও উদ্দেশ্য ছিল কিনা সেটা তাঁকে দেখতে হবে বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী।

Sneha Paul
Sneha Paul

স্নেহা পাল, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তরের পর সাংবাদিকতা শুরু। বিগত প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর