টাইমলাইনভারত

যেই হোক না কেন, দোষীদের উপযুক্ত শাস্তি চাই! দিল্লী হিংসা নিয়ে বড় বয়ান গৌতম গম্ভীরের

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ দিল্লীর (Delhi Violence) ব্রহ্মপুরী আর মৌজপুর এলাকায় আজ তৃতীয় দিনেও পাথরবাজি এবং হিংসক প্রদর্শন জারি। আজ সকালে কিছু এলাকায় উপদ্রবিরা পাথরবাজি শুরু করে দেয়। রবিবার থেকে শুরু হওয়া হিংসায় এখনো পর্যন্ত এক কনস্টেবল সমেত সাত জনের মৃত্যু হয়েছে। সুরক্ষার জন্য পাঁচটি মেট্রো স্টেশন জাফরাবাদ, মৌজপুর-বাবরপুর, গোকুলপুরী, জৌহরি এনক্লেভ এবং শিব বিহার বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

মৌজপুরে লাগাতার গুলি চলার ঘটনার পর ডিসিপি অলোক কুমার ঘটনাস্থল ছেড়ে চলে যান। ডিসিপি চলে যাওয়ার পর এসিপি মোর্চা সামলান। মৌজপুর এলাকায় ছয় জন গুলিবিদ্ধ হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। এক মহিলা গুরুতর আহত হয়েছে বলে জানা যায়। যদিও এই ঘটনা নিয়ে এখনো পর্যন্ত পুলিশের কোন বয়ান সামনে আসেনি।

সকালে মৌজপুরে পাথরবাজির পর সেখানকার পরিস্থিতি নতুন করে অশান্ত হয়ে পড়ে। সেখানেও ফায়ারিং এর কিছু ঘটনা সামনে এসেছে। মঙ্গলবার সকালে ব্রহ্মপুরী, মৌজপুর, কবিরনগর আর করাবল নগরে হাঙ্গামার পর সুদামাপুরীতে পাথরবাজি শুরু হয়। মসজিদের পাশে দুই গোষ্ঠীর মধ্যে পাথরবাজি হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায়।

নতুন করে হিংসা ছড়ানোর পর গৌতম গম্ভীর বড় বয়ান দিয়ে বলেন, বিজেপির নেতা কপিল মিশ্রা হোক আর অন্য কোন পার্টির নেতা হোক না কেন। উস্কানিমূলক ভাষণ যে দিয়েছে, তাঁর বিরুদ্ধে যেন কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হয়।

Related Articles

Back to top button