সরকারি কর্মচারীর মৃত্যুর পর সহজেই চাকরি পাবেন নিকটাত্মীয়রা! নির্দেশিকা জারি করল অর্থ দফতর

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ ডায়েড-ইন-হারনেস পরীক্ষার (Die In Harness Rules in West Bengal) নিয়ম পূর্বের তুলনায় সরল করল রাজ্য (State Government)। কর্মরত অবস্থায় কোনও সরকারি কর্মচারীর হঠাৎ মৃত্যু হলে সেই চাকরি তাঁর কোনও নিকটাত্মীয়কে দেওয়া হয়। সেই পরীক্ষার নিয়মই শিথিল করতে চলেছে রাজ্য সরকার। সম্প্রতি অর্থ দফতর এই সংক্রান্ত একটি নির্দেশিকাও জারি করেছে।

কমবে জটিলতা, হবে দ্রুত নিয়োগ

   

ডায়েড-ইন-হারনেস পরীক্ষার বিধিতে নানা জটিলতা থাকায় অনেক সময়ই মৃত ব্যক্তির পরিবারের সদস্যদের চাকরি পেতে অসুবিধায় পড়তে হয়। যার দরুন সঠিক সময় মতো নিয়োগও সম্ভব হচ্ছে না। সূত্রের খবর, সরকারি কর্মচারী সংগঠনগুলির একাংশ সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, এই প্রকার নিয়োগের ক্ষেত্রে কম্পিউটার পরীক্ষা হয়। সেই সংক্রান্ত রাজ্য ‘সার্ভিস আইন’ (রিক্রুটমেন্ট টু ক্লারিক্যাল ক্যাডার) নিয়ে বিবেচনার স্তরে রয়েছে রাজ্য। ফলে চাকরিতে নিয়োগে জটিলতা দেখা দিচ্ছে।

nabanna

আরও পড়ুন: তৃণমূল বিধায়ক জাফিকুলের বাড়ি থেকে উদ্ধার ১ কেজি সোনার গয়না! পেয়ে যা করল CBI

সম্প্রতি এই নিয়ে একটি নির্দেশিকা দিয়ে অর্থ দফতর জানিয়েছে, শূন্যপদের ভিত্তিতে যোগ্য প্রার্থীদের জেলা অফিসে লোয়ার ডিভিশন ক্লার্ক পদে নিয়োগ করা যাবে। যার দ্বারা জটিলতা কমবে। কারণ এর জন্য শুরুতেই কম্পিউটার যোগ্যতা বা পরীক্ষায় বাধ্যবাধকতা নেই।

রয়েছে একটি শর্ত

অর্থ দফতরের নির্দেশিকায় জানানো হয়েছে, ‘প্রবেশন’-এ থাকাকালীন সংশ্লিষ্ট প্রার্থীকে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে ওই পরীক্ষায় পাশ করতে হবে। নয়তো চাকরি স্থায়ী হবে না। সেই পরীক্ষা নেতাজি সুভাষ প্রশাসনিক প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে নেওয়া হবে। তবে একবার পরীক্ষায় পাশ করে গেলে চাকরি স্থায়ীও হবে। পাশাপাশি নিয়মমাফিক পদোন্নতিও হবে। অর্থ দফতরের এই নির্দেশিকায় পর ডায়েড-ইন-হারনেস পরীক্ষার জটিলতা কমবে বলে মনে করা হচ্ছে।