‘ঝড় আসার আগেই ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ ঠিক করা ছিল! সঠিক তথ্য দিক রাজ্য’- কটাক্ষ দিলীপ ঘোষের

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ ঘূর্ণিঝড় ইয়াস (Cyclone Yaas) মোকাবিলায় রাজ্য সরকারের নেওয়া পদক্ষেপ দেখে প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়েছিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ (dilip ghosh)। কিন্তু বিপর্যয় শেষে রাজ্যের দেওয়া ক্ষয়ক্ষতির হিসাব দেখে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জীকে আক্রমণ করলেন দিলীপ ঘোষ।

   

ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাব সরাসরি বাংলায় না পড়লেও, ভরা কোটালের কারণে জলস্ফীতি হওয়ায় উপকূলবর্তী বেশকিছু এলাকার বাঁধ ভেঙে বন্যা প্লাবিত হয়ে পড়ে। ঘর ছাড়া হয় বহু মানুষ। আমফান থেকে শিক্ষা নিয়ে, আগে থাকতেই বিপর্যয় মোকাবিলার জন্য প্রস্তুত হয় সরকার। ত্রাণ শিবিরেরও আয়োজন করা হয়। সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয় অসংখ্য মানুষকে।

dilip ghosh attacks mamata banerjee for covid-19 situation

দুর্যোগ পরবর্তীতে ১৩৪ টি বাঁধ ভেঙে যাওয়ার হিসেব দিয়েছে রাজ্য সরকার। কিন্তু এই হিসেব মানতে নারাজ বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তাঁর দাবী, ‘ঝড় আসার আগেই কি ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ ঠিক করে রাখা ছিল? সঠিক তথ্য দিক রাজ্য। ১৩৪ টি বাঁধ ভাঙ্গার হিসেব কোথা পেল সরকার? আয়লার পর কতটা পাকা করা হয়েছিল বাঁধগুলো? আমফানের পর ঠিক কতগুলো ম্যানগ্রোভের চারা লাগানো হয়েছিল? প্রথম থেকেই তো ঘূর্ণিঝড়ের বরাদ্দ অর্থ নিয়ে রাজনীতি করছেন মুখ্যমন্ত্রী’।

ঝড় পরবর্তীতে কেন্দ্রের তরফ থেক কোন ফোন এসেছিল কিনা, তা জানতে চাওয়ার মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘এই সময় রাজ্য-কেন্দ্রীয় এজেন্সি সহযোগে কাজ করছে। এই প্রাকৃতিক দুর্যোগের সময় কেন্দ্র-রাজ্য সংঘাত আলাদা করে দেখা ঠিক নয়’। মুখ্যমন্ত্রীর এমন মন্তব্য শুনে কিছুটা আপ্লুত হন দিলীপ ঘোষ। এবিষয়ে বিজেপি রাজ্য সভাপতি বলেন, ‘ভালো লাগছে এটা শুনে যে উনি সমন্বয় চান’।

Avatar
Smita Hari

সম্পর্কিত খবর