টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

‘ম্যান মেড বন্যা”র অভিযোগ করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী, এবার স্পষ্ট জবাব দিল DVC কর্তৃপক্ষ

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ রাজ্যে বন্যার পরিস্থিতি তৈরি হলেই ডিভিসির বিরুদ্ধে আঙুল তোলা হয়। বারবারই অভিযোগ করা হয়ে যে, ডিভিসি জল ছাড়ার কারণেই রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় বন্যা হয়েছে। এবারও ঠিক একই হল, স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) ডিভিসির বিরুদ্ধে প্রবল বর্ষণের মধ্যে জল ছাড়ার অভিযোগ তুলে বাংলার বন্যাকে ‘ম্যান মেড” বলে আখ্যা দিয়েছেন। যদিও মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ মানতে নারাজ ডিভিসি কর্তৃপক্ষ।

ডিভিসির তরফ থেকে পাল্টা দাবি করে বলা হয়েছে যে, শুধু বাঁধ থেকে জল ছাড়ার জন্যই না, গোটা রাজ্যে অবিশ্রান্ত বৃষ্টির ফলেই দক্ষিণবঙ্গে বিস্তীর্ণ অঞ্চল এখন জলমগ্ন। পাশাপাশি পাঞ্চেত, মাইথন জলাধারগুলিতে ড্রেজিংয়ের প্রয়োজন বলে দাবি করেছে ডিভিসি কর্তৃপক্ষ।

DVC-র এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর সত্যব্রত ব্যানার্জী জানান, আমরা যতটা সম্ভব জল ধরে রেখেছি। বর্তমানে সাড়ে তিন লক্ষ কিউসেক জল ধরে রাখা হয়েছে। কিন্তু কিছুদিন ধরে অবিরাম বৃষ্টির কারণে জল অনেকটাই বেড়েছে। আমরা একদিনে সর্বাধিল ১ লক্ষ ৪৬ হাজার কিউসেক জল ছেড়েছি। শুধু বাঁধ থেকে জল ছাড়ার কারণে বন্যা হয়নি। এরজন্য অবিরাম বৃষ্টি দায়ী।

রাজ্যকে না জানিয়ে জল ছাড়ার অভিযোগ পুরোপুরি খারিজ করে দিয়েছেন সত্যব্রতবাবু। তিনি বলেছেন, জল ছাড়া নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষমতা ডিভিসির নেই। জলাধার থেকে কখন কত পরিমাণ জল ছাড়া হবে, সেটা ঠিক করার জন্য একটি কমিটি রয়েছে। সেই কমিটির সদস্যদের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গও ঝাড়খণ্ডের সেচ দফতরের চীফ ইঞ্জিনিয়ার, কেন্দ্রীয় জল কমিশনের সদস্য এবং ডিভিসির সেচ ইঞ্জিনিয়াররা রয়েছেন। কমিটির নির্দেশ মতই জলাধার থেকে জল ছাড়া হয়।

Related Articles

Back to top button