টাইমলাইনফুটবলখেলা

তৃতীয় দিনের অনুশীলনে বিপত্তি, কনস্ট্যানটাইনের চিন্তা বাড়িয়ে চোট পেলেন এই ইস্টবেঙ্গল ডিফেন্ডার

বাংলা হান্ট নিউজ ডেস্ক: ইস্টবেঙ্গল অনুশীলন শুরু করেছে আজ তৃতীয় দিন হল। প্রথম দুদিন সুষ্ঠ ভাবেই অনুশীলন সম্পন্ন হয়েছে। প্রধান কোচ স্টিফেন কনস্ট্যানটাইনের উদ্যম ও আগ্রহ মন কেড়েছিল লাল হলুদ ভক্তদের। কিন্তু তাল কাটলো তৃতীয় দিনে। এখনও ইস্টবেঙ্গলের ১৩ জনের বেশি ফুটবলারের নাম অফিসিয়ালি ঘোষণা করেনি। তার মধ্যেই চোট পেয়ে বসলেন ইস্টবেঙ্গলের তারকা বাঙালি ডিফেন্ডার সার্থক গলুই।

অনেকেই মনে করছেন সার্থকের চোটের জন্য দায়ী ইস্টবেঙ্গল মাঠ। মাঠের অবস্থা সঠিক পরিচর্যার অভাবে খুব একটা ভালো নেই। কিছুদিন আগেই ইস্টবেঙ্গলের সহকারী কোচ বিনো জর্জ ইস্টবেঙ্গল ক্লাব ঘুরে ইস্টবেঙ্গলের নিজস্ব মাঠকে দেশের সেরা বলেছিলেন। কিন্তু প্রধান কোচ স্টিফেন কনস্ট্যানটাইন সেই মাঠ থেকে খুব সন্তুষ্ট ছিলেন না। অনুশীলনের জন্য অন্য মাঠের ব্যবস্থা করতে বলেছিলেন ম্যানেজমেন্টকে। কিন্তু তার আগেই একটা অনভিপ্রেত ঘটনা ঘটে গেল। সার্থকের চোট কতটা গুরুতর তা এখনও জানা যায়নি কিন্তু আপাতত অনুশীলনে নামছেন না তিনি।

ইতিমধ্যে অন্যান্য কিছু কাজ এগিয়ে রাখছে ক্লাব ম্যানেজমেন্ট। শুক্রবার আইএফএ-তে চিঠি পাঠিয়ে জানিয়ে দিয়েছে যে কলকাতা লিগে তারা ইমামি ইস্টবেঙ্গল নামেই লিগে খেলতে চায়। তার সাথে সাথে যোগাযোগ করা হয়েছে অল ইন্ডিয়া ফুটবল ফেডারেশনের সাথেও। তাদের ইমেল করে লাইসেন্সিংয়ের জন্য আবেদন করা হয়। সকলেই জানেন আইএসএলে খেলতে গেলে কোম্পানি অ্যাক্টে নাম নথিভুক্ত করিয়ে রাখতে হয়। আর আইএসএলে ইস্টবেঙ্গল নিজেদের পরিচয়েই খেলবে। সেই ব্যাপার নিয়ে আর কোনওরকম বিভ্রান্তি চান না লাল-হলুদ ক্লাবকর্তারা।

ইতিমধ্যে ফুটবলার সই করানোর বিষয়ে আরো কয়েক ধাপ এগিয়েছে ইস্টবেঙ্গল। বিদেশিদের নাম কাল অর্থাৎ শনিবারের মধ্যে চূড়ান্ত হয়ে যাওয়ার কথা। শোনা যাচ্ছিল সিএফএল এর জন্য যে বিদেশি নেওয়া হবে আইএসএলে তারা খেলবেন না, তাদের জায়গায় আবার অন্য বিদেশে আনা হবে। সেই নিয়ে আপাতত কোন আপডেট না থাকলেও ইস্টবেঙ্গল ইতিমধ্যে এফসি গোয়ার সেন্টার ব্যাক আইবানবা ডহলিংকে প্রস্তাব দিয়েছে ইস্টবেঙ্গল। সব ঠিক থাকলে ইস্টবেঙ্গলে যোগ দিতে কোন সমস্যা হবে না তার। আইএসএলে গত মরশুমে তিনি ১৬ টি ম্যাচে মাঠে নেমেছিলেন এবং ডিফেন্ডার হওয়া সত্ত্বেও তিনি ১টি গোল এবং ২টি অ্যাসিস্ট করেছিলেন। ইতিমধ্যে রাউন্ডগ্লাস পাঞ্জাব এফসি থেকে সুমিত পাসিকে প্রায় নিশ্চিত করে ফেললেও এখনো জামশেদপুর এর কাছ থেকে ঋত্বিক দাস কে ছিনিয়ে নেওয়ার জন্য লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে ইস্টবেঙ্গল ম্যানেজমেন্ট। ট্রান্সফার ফি’র সমেত প্রস্তাবও গেছে জামশেদপুর এফসি ম্যানেজমেন্টের কাছে।

Related Articles

Back to top button