টাইমলাইনটাকা পয়সাআন্তর্জাতিক

এক ঝটকায় কমে গেল বিশ্বের ধনী ব্যক্তিদের সম্পদ, বিপুল ক্ষতির মুখে ইলন মাস্ক

বাংলা হান্ট নিউজ ডেস্ক: শুক্রবার, বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি এবং টেসলা অ্যান্ড স্পেসএক্সের মালিক এলন মাস্ক বড়রকমের ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন। একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, টেসলা ইনকর্পোরেটেডের শেয়ার পতনের কারণে শুক্রবার মাস্কের সম্পদ ১৫.২ বিলিয়ন ডলার ( ভারতীয় মুদ্রায় ১ লাখ ১৩ হাজার ২০৮ কোটি টাকা) কমেছে। হিসাব বলছে যে টেক স্টক হ্রাস মূল্যস্ফীতি এবং অর্থনৈতিক সংকটের সম্ভাবনার কারণে এবং এর বড় প্রভাব টেসলার উপর পড়েছে।

বিলিয়নেয়ার ইনডেক্স রিপোর্ট অনুযায়ী, ইলন মাস্কের সম্পদ টেসলা ইনকর্পোরেটেড হিসাবে শুক্রবার ২৬৮.৯ বিলিয়ন ডলারে নেমে এসেছে। বৃহস্পতিবার পর্যন্ত, মাস্কের মোট সম্পদের পরিমাণ ছিল প্রায় ২৮৪ বিলিয়ন ডলার। বিশ্বের অন্যান্য ধনী ব্যক্তিদেরও সম্পদের পরিমাণ কমেছে। এই তালিকায় মাস্কের পরেই আসে অ্যামাজনের জেফ বেজোসের নাম। বেজোসের সম্পদ ২.৭ বিলিয়ন ডলার কমেছে। শুক্রবার Amazon Inc এর শেয়ার ১.৪ শতাংশ পর্যন্ত কমেছে। এই পতনের পরে, জেফ বেজোসের মোট সম্পদ ১৯৫ বিলিয়ন ডলারে নেমে আসে। জানা গিয়েছে শীর্ষ ১০ মার্কিন কারিগরি বিলিয়নেয়ারের মোট সম্পদের পরিমাণ মিলিত ২৭.৪ বিলিয়ন ডলার কমেছে।

এলন মাস্ক এবং জেফ বেজোসের পাশাপাশি বিশ্বের আরও অনেক বিলিয়নেয়ারের সম্পদও কমেছে। এই তালিকায় ওরাকল কর্পের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ল্যারি এলিসন, ফেসবুকের মালিক মার্ক জুকারবার্গ, বার্নার্ড আর্নল্ট এবং বিল গেটসও রয়েছেন বলে রিপোর্টে বলা হয়েছে। এই অভিজাতদের সম্পদও চোখের নিমিষেই উল্লেখযোগ্য হারে কমে যায়। আমরা যদি রিপোর্টে দেওয়া পরিসংখ্যান দেখি, ল্যারি এলিসনের সম্পদ ২.৬ বিলিয়ন ডলার কমেছে, যেখানে মার্ক জুকারবার্গের সম্পদ ১.৩ বিলিয়ন ডলার কমে ১১৪.৭ বিলিয়ন ডলারে দাঁড়িয়েছে।

এছাড়াও, বিশ্বের তৃতীয় ধনী ব্যক্তি, বার্নার্ড আর্নল্টের সম্পদ ১.২২ বিলিয়ন ডলার কমেছে, যার পরে তার মোট সম্পদের পরিমাণ ১৬১ বিলিয়ন ডলারে নেমে এসেছে। যদি আমরা মাইক্রোসফটের সহ-প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটসের কথা বলি, তাহলে তার সম্পদ ১.৩৯ বিলিয়ন ডলার কমে ১৩৩ বিলিয়ন ডলার হয়েছে।

Related Articles