ভুলে যান দীঘা, অল্প খরচে ঘুরে আসুন পুরুলিয়ার এই জায়গা থেকে, মিলবে স্বর্গীয় অনুভূতি

   

বাংলা হান্ট ডেস্ক : শীতকালে (Winter) বেশিরভাগ মানুষই ভ্রমণে যেতে বেশি পছন্দ করেন। শীতের দুপুরে ঘুরতে যাওয়ার আনন্দটাই অন্যরকম। ঘোরার সময় শীতের রোদ যখন গায়ে এসে লাগে সেটা একটা আলাদাই অনুভূতি। তাই আপনিও যদি কোথাও ঘুরতে যাবেন ভাবছেন, কিন্তু সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে পারছেন না। তাহলে, এই প্রতিবেদনটি আপনার জন্য।

আজ আপনাদের এমন একটি সুন্দর জায়গার সন্ধান দেব। যা দেখলে হয়তো আপনারও সেখানে যাওয়ার মন করবে। পুরুলিয়া (Purulia) জেলার কংসাবতী (Kansavati) জলাধারের কোল ঘেঁষে গড়ে উঠেছে সোনাঝুরি (Sonajhuri)। সেখানকার জঙ্গল (Forest), প্রকৃতি (Nature), নদী (River) পার অপূর্ব সুন্দর।

তবে এই প্রতিবেদনটিতে দোলাডাঙ্গাকে (Doladanga) নিয়ে কিছু কথা আপনাদের জানাবো। আপনাদের মধ্যে এমন অনেকেই আছেন যারা শান্ত পরিবেশে সময় কাটাতে বেশ পছন্দ করেন। সেই সমস্ত মানুষদের জন্য দোলাডাঙ্গা স্বর্গের সমান। এই জায়গাটি পুরুলিয়া জেলার সোনাঝুরি বনের আদি ঘনত্বে এটি অবস্থিত। তাছাড়া যারা প্রকৃতিকে ভালোবাসে তাদের জন্য এ জায়গা স্বর্গের সমান। যদিও এটি একটি উপজাতি গ্রাম।

যদি আপনি এখানে এক রাত বা দু রাত থাকার কথা ভাবেন তাহলে, আপনাকে এখানে থাকার জন্য তাঁবু দেওয়া হবে। তাছাড়া এখানে সন্ধ্যাবেলাটা বেশ মজাদার। ক্যাম্পের (Camp) লোকেরা মশাল জ্বালিয়ে আপনাকে বনের মধ্যে ঘুরাতে নিয়ে যাবে। সেই এক গা ছম ছমের ব্যাপার বলতে পারেন। মোটামুটি ১২০০ থেকে ১৫০০ টাকার মধ্যে থাকা খাওয়া সবই পেয়ে যাবেন।

doladanga 22

সেখানকার কংসাবতী নদীর উপর সূর্যের আলো পড়ায় যেন মনে হয় হিরে চকচক করছে। আপনি চাইলে সেখানে চানও করতে পারেন। আর সেখানে দুপুরের খাবার হিসেবে আপনি পেয়ে যাবেন মুরগির ঝোল বা মাছের ঝোল। আপনার যেটা পছন্দ আপনি সেটা খেতে পারেন। তাছাড়া সন্ধ্যের দিকে থাকবে বনফায়ারেরও (Bonfire) ব্যবস্থা। তার সাথে আপনাদের বিনোদনের জন্য থাকবে গ্রামের শিল্পীদের গলায় বাউল গান।

সম্পর্কিত খবর