চীনের বিরুদ্ধে মাস্টারস্ট্রোক ভারতের! লাদাখে বিশ্বের উচ্চতম বিমানঘাঁটি তৈরির ঘোষণা মোদীর

   

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ জি-২০ বৈঠকেই চীনকে (China) পাল্টা ভারতের (India)। লাদাখে (Ladakh) বিশ্বের উচ্চতম সামরিক বিমানঘাঁটি করা হবে বলে জি-২০ সম্মেলনের মঞ্চ থেকেই ঘোষণা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। যা কার্যত মাস্টারস্ট্রোক বলে মনে করছে আন্তর্জাতিক মহল।

কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রকের অধীনস্থ বর্ডার রোড অর্গানাইজেশনের তরফে ঘোষণা করা হয়েছে, প্রায় ২১৮ কোটি টাকা ব্যয়ে লাদাখের নিওমাতে বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু সামরিক বিমানঘাঁটি তৈরি করা হবে। আগামী ১২ সেপ্টেম্বর অর্থাৎ বুধবার জম্মুর দেবক সেতু থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এই বিমানঘাঁটির শিলান্যাস করবেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। তবে শুধু এটাই নয়, ওই দিন মোট ৯০টি প্রকল্পের শিলান্যাস করবেন তিনি। যার মধ্যে রয়েছে বাগডোগরা ও বারাকপুর বিমানঘাঁটির আধুনিকীকরণের কাজও। এই ৯০টি প্রকল্পের কাজের খরচ হবে প্রায় ২ হাজার ৯৪১ কোটি টাকা।

লাদাখের নিওমা লাইন অফ কন্ট্রোল থেকে ৪৬ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। এর উচ্চতা প্রায় সাড়ে ১৩ হাজার মিটার। চীন ও ভারতের সম্পর্কের ক্ষেত্রে এই এলাকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ২০২০ সালে চীনা আগ্রাসনের পর থেকে এই এলাকার মাধ্যমেই ভারতীয় সেনাকে অস্ত্র-সহ নানা জিনিস সরবরাহ করা হয়। এই এলাকাতেই একাধিকবার বিভিন্ন চিনুক কপ্টার এবং স্পেশাল সি-১৩০জে এয়ারক্রাফট ওঠানামা করেছে, নজরদারি চালিয়েছে ভারতের উপর।

তাই এই এলাকাই বিমানঘাঁটির জন্য বেছে নিয়েছে ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রক। যা কৌশলগতভাবে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলেই মনে করা হচ্ছে। এই বিমানঘাঁটি তৈরি হলে লাদাখে প্রতিরক্ষা কাঠামোয় সেনাবাহিনী এবং বায়ুসেনা বল পাবে বলে মনে করছেন প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞরা। সেখান থেকে চীনের বিরুদ্ধে সামরিক কৌশল যেমন সহজতর হবে, ঠিক তেমনই ওই অঞ্চলে বাণিজ্যিক বিমান চলাচলের পথ সুগম হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

Avatar
Monojit

সম্পর্কিত খবর